নীড় পাতা » ব্রেকিং » পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বিক উন্নয়নে সরকার আন্তরিক

পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বিক উন্নয়নে সরকার আন্তরিক

CHTDB-pic-01বর্তমান সরকার আন্তরিকতার সাথে দেশ পরিচালনা করছেন। দেশে পিছিয়ে পড়া সকল জনগোষ্ঠিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে আসতে কাজ করে চলেছেন অবিরাম। সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় দেশ বর্তমানে অনেকদূর এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশের বিশাল একটি জায়গা হচ্ছে এই পার্বত্য চট্টগ্রাম। এছাড়া এখানের মানুষ এখনো অনেকটুকু পিছিয়ে রয়েছে। তাই বর্তমান সরকার আন্তরিকতার সাথে পার্বত্য অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে চলেছে। বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় এনে পার্বত্য এলাকাকে উন্নত করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

সোমবার বিকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড প্রধান কার্যালয়ের মাইনী সম্মেলন কক্ষে আইসিডিপি আলোকিত ভবিষ্যত বিনির্মাণ ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রকল্পে কর্মরতদের কর্ম সম্পাদন ও উদ্ভাবনী উদ্যোগের মূল্যায়নের ভিত্তিতে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা, কর্মচারী ও মাঠকর্মীদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা এসব কথা বলেন।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সদস্য অর্থ মোহাম্মদ শাহীনুল ইসলাম’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন, ইউনিসেফ চিফ ফিল্ড অফিসার মাধুরী ব্যানার্জী। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমন্বিত সমাজ উন্নয়ন প্রকল্প-৩য় পর্যায়ের প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ ইয়াছিন। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বরকল উপজেলা চেয়ারম্যান মনি চাকমা, সিনিয়র পাড়াকর্মী ¤্রাহাদু মারমা, পাড়াকর্মী শেফালী চাকমা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা আরো বলেন, এই প্রকল্পের আওতায় উন্নয়ন কাজের মধ্যে শিক্ষা ক্ষেত্রে অন্যতম হচ্ছে প্রি-প্রাইমারি ক্লাস চালু করা। এটার মাধ্যমে আমাদের এই তিন পার্বত্য অঞ্চরের বাচ্চাদের পড়ালেখার অনেক সুবিধা সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে আমাদের দেখাদেখি বাংলাদেশের সমতল এলাকায়ও এই প্রি-প্রাইমারি ক্লাস চালু করার জন্য মন্ত্রণালয়ে আহ্বান করা হচ্ছে। পার্বত্য এলাকাকে এগিয়ে নিতে এমনই কিছু কাজ হাতে নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

সম্মাননা প্রদানকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আজ আপনারা কাজ করেছেন বলে সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে। আপনাদের কঠোর পরিশ্রমের কারণে পার্বত্য এলাকা এগিয়ে যাচ্ছে। কর্মকর্তা, কর্মচারীদের কাজের মূল্যায়নের স্বীকৃতিস্বরূপ এই সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন বলেন, পার্বত্য অঞ্চল যদি এগিয়ে যায় তবে সারা দেশ এগিয়ে যাবে, আর যদি এই অঞ্চল পিছিয়ে পড়ে তবে সারা দেশও পিছিয়ে পড়বে। তিনি আরো বলেন, দেশকে এগিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব আমাদের সকলের, তাই দেশের জন্য আমাদেরকে কাজ করতে হবে। সকলে এক সাথে যদি দেশের জন্য কাজ করা সম্ভব হয় তবে দেশ এগিয়ে যাবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

আলোচনা সভার পরে ১১০ শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা, কর্মচারী ও মাঠকর্মীকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। পরে সন্ধ্যায় স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করা হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply