নীড় পাতা » বান্দরবান » ইউপি কার্যালয়ে চেয়ারম্যানের তালা !

ইউপি কার্যালয়ে চেয়ারম্যানের তালা !

Bandarban-up-PiCবান্দরবানে চেয়ারম্যান-সচিব দ্বন্দে সুয়ালক ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। চেয়ারম্যানের নির্দেশে ইউপি অফিসের সহায়ক আব্দুল খালেক মঙ্গলবার বিকালে চারটায় অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেন বলে খবর পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুরে ইউপি অফিসে তালা লাগানো থাকায় সার্টিফিকেট’সহ বিভিন্ন সেবা নিতে আসা স্থানীয় বাসিন্দাররা সেবা না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। সূয়ালক ইউপি অফিসে সব ধরণের সেবামূলক কর্মকান্ড বন্ধ রয়েছে।
মহিলা ইউপি সদস্য ম্যাসা থুই মারমা ও রিনা বেগম বলেন, অফিসে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে খবর পেয়ে ইউপি অফিসে দেখা গেছে তালা ঝুলছে। ওয়ার্ডের অনেক লোকজন বয়স্কভাতা, জন্ম নিবন্ধন সনদ, ইউপি সার্টিফিকেট, ট্রেড লাইসেন্স নেয়ার জন্য অফিসে এলেও তারা কোনো সার্টিফিকেট নিতে পারেননি। অফিসে আসার পর থেকে দুপুর পর্যন্ত তালাবদ্ধ পেয়েছেন। একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠানে একজন চেয়ারম্যান কি করে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে অফিস বন্ধ করে রাখেন তা তাদের বোধগম্য হচ্ছেনা। তারা আরো বলেন,
মুলত চেয়ারম্যান রাংলাই ম্রো নিজেই একজন দুর্নীতি পরায়ন ব্যক্তি। টোল ট্যোক্সের প্রায় ৭ লক্ষ টাকা জুনের মধ্যে ব্যাংকে জমা দেয়ার কথা থাকলেও এখনো পর্যন্ত জমা দেননি। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ অভিযোগ রয়েছে।
২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, চেয়ারম্যান রাংলাই ম্রো অনিয়মিত অফিস করেন। তার বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগও রয়েছে। স্থানীয় লোকজনেরা সেবা না পাওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে তার বিরুদ্ধে মানুষ ফুসে রয়েছে। আজ অফিসে তালা ঝুলিয়ে তারই প্রমান দিলেন চেয়ারম্যান। এ বিষয়টির যথাযথ তদন্তপুর্বক চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবী জানান তিনি।
ফারুকপাড়ার বাসিন্দা সিম আং বম ও কাইচতলীর বাসিন্দা আমেনা বেগম বলেন, অনেক দুর থেকে অর্থ-সময় ব্যয় করে তারা জন্ম নিবন্ধন সনদ পাওয়ার জন্য সুয়ালক ইউপি অফিসে এসেছিলেন। কিন্তু অফিস তালাবন্ধ থাকায় তারা সনদ না নিয়েই ফিরে যাচ্ছেন। দুবার এসেও সার্টিফিকেট পাওয়া যায়নি। সাটিফিকেট না পেলে তাদের অপুরনীয় ক্ষতি হয়ে যাবে। অফিস সহায়ক মোঃ আব্দুল খালেদ বলেন, চেয়ারম্যানের নির্দেশে মঙ্গলবার বিকেলে অফিসে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়। অফিসে চাবি সচিব’সহ অন্যকাউকে না দেয়ার নির্দেশ দেন চেয়ারম্যান।
এদিকে সংশ্লিষ্ট ইউপি সচিব মিলন চক্রবর্তী জানান, চেয়ারম্যান তার নামে মিথ্যা অভিযোগ তুলে তাকে অন্যত্র বদলী করিয়েছেন। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান রাংলাই ম্রো মুঠোফোনে সাংবাদিকদের বলেন, প্রশাসনের নির্দেশে তিনি ইউপি অফিসে তালা লাগিয়েছেন। এসময় সচিবের বিরুদ্ধেও নানা অভিযোগ তোলেন।
জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, ইউপি সচিবের সঙ্গে দ্বন্দে চেয়ারম্যান সূয়ালক ইউনিয়ন পরিষদে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন বলে শুনেছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply