নীড় পাতা » আলোকিত পাহাড় » ইসিমড’র চেয়ারপার্সন হলেন নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা

ইসিমড’র চেয়ারপার্সন হলেন নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা

nobo-bikromবাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা ২০১৬ সালের জন্যে ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ইন্টিগ্রেটেড মাউন্টেন ডেভেলপমেন্ট (ইসিমড) চেয়ারপার্সন নির্বাচিত হয়েছেন। সংস্থার ৪৬তম বোর্ড অব ডিরেক্টর্স সভায় নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরাকে চেয়ারপার্সন নির্বাচিত করা হয়। গত ৩০ নভেম্বর চীনের কুমলিং-এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

১ ডিসেম্বর ইস্যু করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আইসিআইএমওডি নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার নতুন দায়িত্ব প্রাপ্তির কথা জানায়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী বছরের ১ জানুয়ারি তিনি সংস্থার দায়িত্বভার গ্রহন করবেন। পর্বত এবং পর্বত এলাকায় বসবাসকারী মানুষের জীবনমাণের উন্নয়নের লক্ষ্যে ১৯৮৩ সালে আন্তর্জাতিক সমন্বিত পর্বত উন্নয়ন সংস্থা আইসিআইএমওডি গঠিত হয়। আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, চীন, ভারত, মায়ানমার, পাকিস্তান ও নেপালসহ হিন্দুকুশ-হিমালয় অঞ্চলের ৮টি দেশ এর সদস্য। নেপালের কাঠমন্ডুতে সংস্থার প্রধান কার্যালয় অবস্থিত। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আন্তঃসরকার কর্তৃক পরিচালিত এই সংস্থার সদস্য দেশগুলোর ৮জন প্রতিনিধি এবং সংস্থার ৭জন সদস্যের সমন্বয়ে বোর্ড অব ডিরেক্টর্স গঠিত হয়। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা এই সংস্থার একজন পরিচালক। গত বছর নেপালের কাঠমন্ডুতে সংস্থার প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা ‘পার্বত্য চট্টগ্রামের জন্য টেকসই উন্নয়ন কৌশল’ প্রস্তাবনা পেশ করেন। প্রস্তাবটি আইসিআইএমওডি গুরুত্বের সাথে গ্রহন করে। আগামী বছর থেকে এই কর্মকৌশল বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবে।

এছাড়া বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ এবং আইসিআইএমওডি যৌথ উদ্যোগে ‘বান্দরবানের স্থানীয় জনগণকে নিয়ে পর্যটন এবং পর্যটন সংশ্লিষ্ট মানুষের জীবনমাণ উন্নয়ন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প গত দু’বছর থেকে চলমান রয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ফর ইন্টিগ্রেটেড মাউন্টেন ডেভেলপমেন্ট বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর এডভান্স স্টাডিস, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ আবহাওয়া বিভাগ, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি, বাংলাদেশ স্পেস রিসার্চ এন্ড রিমোট সেনসিং অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্টাল এন্ড জিওগ্রাফিক ইনফরমেশন সার্ভিসেস, ইন্সটিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘আরণ্যক ফাউন্ডেশন’ এর সাথে যৌথ ভাবে বন্যার আগাম পুর্বাভাষ সিস্টেমের শক্তিশালীকরন এবং একটি আঞ্চলিক বন্যা পুর্বাভাষ কৌশল প্রনয়নের লক্ষ্যে কাজ করছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী বছরের নভেম্বর মাসে সংস্থার ৪৭তম বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশে। ( সূত্র : কালের কন্ঠ)

Micro Web Technology

আরো দেখুন

মা-বাবাসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

খাগড়াছড়িতে পৃথক ধর্ষণের ঘটনায় বাবা-মাসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। খাগড়াছড়ি নারী ও শিশু …

Leave a Reply