নীড় পাতা » পাহাড়ের রাজনীতি » ‘সংগঠনের জন্য পঙ্গুত্ব বরন করেছি,প্রয়োজনে জীবনও দিতে পিছপা হবোনা’

‘সংগঠনের জন্য পঙ্গুত্ব বরন করেছি,প্রয়োজনে জীবনও দিতে পিছপা হবোনা’

Bandarban-Awamilig-Pic.‘বান্দরবান সংসদীয় আসনটি ধরে রাখতে চাই। কোনো ব্যক্তির কারণে সংসদীয় আসনটি হাত ছাড়া হতে দিতে পারিনা। প্রয়োজনে বিকল্প প্রার্থী খোঁজে বের করা হবে। সেক্ষেত্রে তৃনমূলের নেতাকর্মীদের মতামত যাছাই-বাছাইয়ের উপর গুরুত্ব দিতে হবে। সংগঠনের স্বার্থে তৃনমূলের নেতাকর্মীদের ইচ্ছাতেই আগামী সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চাইছেন। দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও মনোয়ন প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন। সময়মত মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করবেন।’ বান্দরবানে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রসন্ন কান্তি তংচঙ্গ্যা এইসব কথা বলেছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বান্দরবান সদরের নিউ গুলশানস্থ নিজ বাসভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে নিজের অবস্থান তুলে ধরেন বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের টানা সতের বছরের নির্বাচিত সভাপতি। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বান্দরবান প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক, জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আল ফয়সাল বিকাশ, রিপোটার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহম্মেদ চৌধুরীসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার প্রায় ২০ জন স্থানীয় প্রতিনিধি এবং আওয়ামীলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
প্রসন্ন কান্তি তংচঙ্গ্যা দলীয় মনোনয়ন পেলে গেরিলা যুদ্ধের কৌশলে এগুবেন জানিয়ে বলেন,জয়ের ব্যাপারেও তিনি আশাবাদি। তবে নেতাকর্মীদের মতামত যাছাই-বাছাই ছাড়া প্রার্থী চূড়ান্ত করা হলে বান্দরবান সংসদীয় আসনটি হারানোর শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি। একইসঙ্গে সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের ঘটনায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামীলীগ সংসদ সদস্য ও আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বীর বাহাদুর এমপি কর্তৃক দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশের প্রতিবেদক আলাউদ্দিন শাহরিয়ার’কে হাত-ভেঙ্গে গুড়ি করে দেয়াসহ গনমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে অশালীন আচরণের জন্য আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দুঃখ প্রকাশ করেন।

 অন্যায় এবং অপরাধীদের কখনো ছাড় দেইনা। সংগঠনের জন্য কাজ করতে গিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের গুলিতে পঙ্গুত্ব বরন করেছি। প্রয়োজনে জীবনও দিতে পিছ পা হবোনা। আদর্শে বিশ্বাস করে বঙ্গবন্ধুর আমল থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসছি।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রসন্ন কান্তি তংচঙ্গ্যা আরো বলেন, প্রার্থী বাছাইয়ে ভুল করবেন না দলের সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। সেক্ষেত্রে দলের তৃনমূলের নেতাকর্মীদের মতামতকে অবশ্য গুরুত্ব দিবেন। সরকারের সাফল্য ব্যর্থতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভুল ভ্রান্তি থাকতে পারে, কিন্তু সরকারের গত পাঁচ বছরে উন্নয়ন হয়েছে অনেক। উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পাদনে স্বচ্ছতা রাখার প্রয়াস ছিল। ব্যক্তি বিশেষের আচরণে দলের নেতাকর্মী এবং স্থানীয়রা ক্ষুদ্ধ হয়ে থাকতে পারেন। তবে আমার সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কারো বিরোধ নেই। কিন্তু অন্যায় এবং অপরাধীদের কখনো ছাড় দেইনা। সংগঠনের জন্য কাজ করতে গিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের গুলিতে পঙ্গুত্ব বরন করেছি। প্রয়োজনে জীবনও দিতে পিছ পা হবোনা। আদর্শে বিশ্বাস করে বঙ্গবন্ধুর আমল থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসছি। লোভনীয় এবং বিরোধীদল থেকে সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাবও পেয়েছিলাম। কিন্তু গ্রহণ করিনি, জীবনের ক্রান্তিলঘেœ এসে সংগঠনের স্বার্থে দলীয় মনোনয়ন চাইছি। দল যোগ্য মনে করলে মনোনয়ন দিবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

করোনায় কমেছে স্থানীয় পণ্যের চাহিদা

বছরের পর বছর ধরে পূর্বের ঐতিহ্য ধরে রাখতে বাঁশের তৈরি হস্তশিল্প, তাঁতের তৈরি থামি, চাদর …

Leave a Reply