নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » ৭ বছরের জন্য ২০০ মিলিয়ন ডলারের প্রকল্প প্রস্তাবনা দিয়েছে ইউএনডিপি

৭ বছরের জন্য ২০০ মিলিয়ন ডলারের প্রকল্প প্রস্তাবনা দিয়েছে ইউএনডিপি

Nobibikrom-pic-01পার্বত্য শান্তিচুক্তির অবাস্তবায়িত অংশগুলো অচিরেই বাস্তবায়ন হবে বলে জানিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নববিক্রম কিশোর ত্রিপুরা।

শুক্রবার বিকালে রাঙামাটির আসামবস্তিতে নির্মিতব্য রাঙামাটি পাবলিক কলেজের একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজের শুভ সূচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক ও পাবলিক কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোস্তফা কামাল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ, রাঙামাটি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অরুন কান্তি চাকমা,রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র সাইফুল ইসলাম ভুট্টো, পাবলিক কলেজের অধ্যক্ষ তাসাদ্দিক হোসেন কবির, সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার সহধর্মিনী কবি ও বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী অনামিকা ত্রিপুরা,।

অনুষ্ঠানে পার্বত্য সচিব আরো বলেন, শান্তির জন্য আমরা শািন্তচুক্তি করেছি। চুক্তির শর্ত অনুসারে পার্বত্য জেলা পরিষদে ৩৩ টি বিভাগের মধ্যে ২৯ টি বিভাগ হস্তান্তর করা হয়েছে। সম্প্রতি ভুমি কমিশনও গঠন হয়েছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উ্ন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান নববিক্রম কিশোর ত্রিপুরা বলেন,পাহাড়ে শিক্ষা ও মানবসম্পদ উন্নয়নের পাশাপাশি এখানকার অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রসার ঘটাতে রাঙামাটিতে অচিরেই স্থলবন্দরের কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। এর মধ্যে এ বিষয়ে একটি বৈঠকও হয়েছে। অল্পদিনের মধ্যে একটি উচ্চ পর্যায়ের দল ঠেগামুখ পরিদর্শন করবেন।

পার্বত্য সচিব বলেন,আগামী ২০১৫-২০২২ সাল পর্যন্ত ৭ বছরের জন্য পার্বত্যাঞ্চলে ইউএনডিপি বিশেষ প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। এতে প্রায় ২০০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করা হতে পারে। এ প্রকল্প শিক্ষা,স্বাস্থ্য,অধিকার ও পরিবেশের বিষয় নিয়ে কাজ করবে। এ বিষয়ে একটি প্রস্তাবনা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে যাচাই-বাছাইয়ের জন্য।

তিনি বলেন, সরকারের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে পাহাড়ের পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠির শিক্ষার উন্নয়নে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সহয়তাও অব্যাহত থাকবে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামাল বলেন,পাবলিক কলেজটি হচ্ছে জনগনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তিনি বলেন, পার্বত্য এলাকা থেকে আমাদের সচিব যদি না হতো তাহলে এত তাড়াতাড়ি এ কাজ শুরু করতে পারতাম না।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিবর্ণ পাহাড়ের রঙিন সাংগ্রাই

নভেল করোনাভাইরাসের আগের বছরগুলোতে এই সময় উৎসবে রঙিন থাকতো পাহাড়ি তিন জেলা। এই দিন পাহাড়ে …

Leave a Reply