নীড় পাতা » ব্রেকিং » ৪৫ বছর পর আবার পতাকা উড়ালেন মনীষ-শামসুদ্দীন

৪৫ বছর পর আবার পতাকা উড়ালেন মনীষ-শামসুদ্দীন

mukto-dibos-1স্বাধীনতার ৪৫ বছর পর এই প্রথম রাঙামাটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে পালিত হয়েছে রাঙামাটি মুক্ত দিবস। মুক্তিযুদ্ধের বিজয় দিবসের একদিন পর ১৭ ডিসেম্বর রাঙামাটি শত্রুমুক্ত হয়। এই দিনেই রাঙামাটির পুরাতন কোর্ট বিল্ডিং মাঠে বিজয়ের প্রথম পতাকা উত্তোলন করা হয়। দিনটি স্মরণে শনিবার সকালে পুনরায় একই স্থানে পতাকা উত্তোলন করা হয়। সেদিন শামসুদ্দীন আহমেদ পেয়ারা ও মনীষ দেওয়ান রাঙামাটিতে স্বাধীন দেশের পতাকা তুলেছিল। ৪৫ বছর পর আজকেও তাঁরা স্বাধীন দেশের পতাকা উত্তোলন করেন। এই সময় জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

পতাকা উত্তোলনের পর পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বস্তরের জনগণের ব্যানারে আয়োজিত এই সভায় বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রবার্ট রোনাল্ড পিন্টু, বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ কমান্ডের সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক শামসুদ্দীন আহমেদ পেয়ারা, মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক সুনীল কান্তি দে, মুক্তিযোদ্ধা রণবিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, লে. কর্নেল(অব.) মুক্তিযোদ্ধা মনীষ দেওয়ান, মুক্তিযোদ্ধা অশোক মিত্র কার্বারি, মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ সমিতির সভাপতি হাজি কামাল উদ্দীন।

স্বাধীনতার এতো বছরে রাঙামাটিতে মুক্ত দিবস পালন না হওয়ায় বক্তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি এখনো সক্রিয়। যে দু’জন ব্যক্তি ১৯৭১ সালে রাঙামাটিতে স্বাধীন দেশের পতাকা উত্তোলন করেছে, ৪৫ বছর পর এসে সেই দুই ব্যক্তির উদ্যোগে আবারো মুক্ত দিবসে পতাকা উত্তোলন করতে হচ্ছে। এটা রাঙামাটির জন্য দুঃখজনক উল্লেখ করে বক্তারা আগামী বছর থেকেই সরকারিভাবে মুক্ত দিবস পালনের দাবি জানান।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply