নীড় পাতা » ব্রেকিং » ১০ দিনেও সন্ধান মেলেনি অপহৃত ইউপি সদস্যের

রাইখালীতে ঘর থেকে অপহরণ

১০ দিনেও সন্ধান মেলেনি অপহৃত ইউপি সদস্যের

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য মংচিং মারমাকে অপহরণের পর দশদিন অতিবাহিত হলেও এখনো সন্ধান মেলেনি। অপহরণের ঘটনায় অপহৃত ইউপি সদস্যের স্ত্রী থানায় একটি জিডি করেছেন। পুলিশ বলছে, অপহৃতকে উদ্ধারে তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

অপহরণ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় এলাকাবাসীর মাঝে উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, প্রকাশ্যে ঘর থেকে জনপ্রতিনিধিরা অপহরণ হলে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায়?

এদিকে ইউপি সদস্যকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকালে রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রভিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে অপহৃতের স্ত্রী সামাউ মারমা, অপহৃতের মেঝ ছেলে হ্লাচাই মারমা, পরিবারের সদস্য, রাইখালী ইউনিয়নের প্রাক্তন ও বর্তমান ইউপি সদস্যসহ ইউনিয়নবাসী উপস্থিত ছিলেন।

এসময় অপহৃত ইউপি সদস্যের বড় ভাই আবুমং মারমা বলেন, আমার ভাই মংচিং মারমাকে যারা অপহরণ করেছে তাদের কাছে অনুরোধ ভাইয়ের ছোট শিশু সন্তানের দিকে তাকিয়ে তাকে মুক্তি দেওয়া হোক। ভাইয়ের জন্য আজ পরিবার-স্বজন সবাই কাঁদছেন।

রাইখালী ইউপি সদস্য মংনুচিং মারমা বলেন, রাইখালী এলাকা এখন সন্ত্রাসের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। একের পর এক হত্যা, অপহরণ ও ডাকাতির মতো ঘটনা ঘটায় এলাকাবাসী চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে। তিনি অবিলম্বে ইউপি সদস্য মংচিং মারমা মুক্তির দাবি জানান।

রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক বলেন, একের পর এক রাইখালীর বিভিন্ন এলাকায় সন্ত্রাস, অপহরণ ও হত্যাসহ সর্বশেষ ইউপি সদস্যকেই সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। ঘটনার দশদিন অতিবাহিত হলেও তাকে এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। অপহৃতের পরিবারের ছোট ছোট কোমলমতী শিশুদের দিকে তাকিয়ে হলেও তাকে মুক্তি দেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

উল্লেখ্য, রাইখালী ইউনিয়নের কারিগর পাড়ার নিজ ঘর থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি রাতে ইউপি সদস্য মংচিং মারমাকে মুখোশধারী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনার তিনদিন পর ২১ ফেব্রুয়ারি তার স্ত্রী চন্দ্রঘোনা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। তবে কারা, কী কারণে এই ইউপি সদসকে অপহরণ করতে পারে? এ বিষয়ে মুখ খুলছেন না পরিবারের লোকজন।

অপহৃতকে উদ্ধার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশ্রাফ উদ্দিন বলেন, অপহৃত ইউপি সদস্য উদ্ধারে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাইয়েও করোনার হানা, প্রথম দিনেই শনাক্ত ২

এত দিন ‘করোনামুক্ত’ থাকা রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলায় হানা দিলো করোনা। রোববার রাতে আসা রিপোর্টে রাঙামাটির …

Leave a Reply