নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » হাতি হত্যা করে দাঁত চুরি !

হাতি হত্যা করে দাঁত চুরি !

Bandarban-Elephant-Picবান্দরবানে আবারো গুলি করে বন্য হাতি হত্যা করে মূল্যবান দাঁত চুরি করে নিয়েছে বনদস্যুরা। জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের ফুলতলী গ্রামের পাহাড়ের অরণ্যে ছুইন্যা ঝিড়ি এলাকায় মঙ্গলবার রাতে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে বিজিবি, বনবিভাগ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

বিজিবি দোছড়ি ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার মোহাম্মদ আলমগীর জানান, মঙ্গলবার রাতে বন্যহাতি হত্যার খবর পেয়ে বিষয়টি বিজিবি উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বনবিভাগকে জানানো হয়। বুধবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখা গেছে গুলি করে হাতিটি হত্যা করে বনদস্যুরা। মূল্যবান দাঁত চুরি করে নিতে হাতির মুখের বিভিন্ন অংশে ক্ষতবিক্ষত করা হয়েছে।
বনবিভাগের তুলাতলী বনবীট কর্মকর্তা বিপ্ল¬ব হোসেন জানান, বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের ৪৮ নাম্বার সীমানা পিলারের পাশ্ববর্তী এলাকায় বন্য হাতিটিকে গুলি করে হত্যা করেছে দূর্বত্তরা। হাতির গলা কেটে দাঁত দুটি চুরি করে নিয়েছে তারা। হাতির মৃতদেহটি মাটির পুতে ফেলা হয়েছে।
স্থানীয় বাসিন্দার আবদুর রশিদ ও গ্রাম পুলিশের সদস্য আরিফ উল্লাহ জানান, কয়েকদিন আগে বন্যপ্রাণী শিকারীরাই গুলি করে বন্য হাতি’টি হত্যা করেছে। মঙ্গলবার রাতে হাতিটিকে গুলি হত্যা করে দাঁত ২টি চুরি করে নিয়ে গেছে। কয়েকদিন আগেও শিকারীর দল ১টি বন্য গয়াল, ৩টি বন্য ছাগল এবং হরিণ শিকার করে নিয়ে গেছে। প্রায়শই অস্ত্র নিয়ে শিকারীরা বন্যপ্রাণী শিকার করে আসছে । দীর্ঘদিন ধরে বনদস্যুরা এই অপকর্ম করে আসলেও প্রশাসন ও বনবিভাগ ব্যবস্থা না নেয়ায় শিকারীরা দিনে দিনে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের জানুয়ারী মাসেও মিয়ানমার সীমান্তবর্তী ফুলতলী গ্রামে আরো ১টি বন্য হাতি গুলি করে হত্যার পর ২টি দাঁত চুরি করে নিয়ে যায় বনদস্যুরা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

লামায় জেলা পরিষদ নির্মাণাধীন সেতু ধসের শঙ্কা

বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বড়পাড়া সংলগ্ন ইয়াংছা খালের ওপর কোটি টাকা …

Leave a Reply