নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » পার্বত্য চট্টগ্রামে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় ঘোষণা

পার্বত্য চট্টগ্রামে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় ঘোষণা

pm33পার্বত্য শান্তিচুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন ও ভূমি কমিশন আইনের সংশোধনীর মাধ্যমে পাহাড়ের ভূমি সমস্যার সমাধান করে পার্বত্য চট্টগ্রামে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা করার প্রত্যয় ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সোমবার পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়িতে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক জনসভায় ভাষন দানকালে এই কথা বলেন।

সোমবার দুপুর ১.৩৮ মিনিটে খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন এ  প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারি হেলিকপ্টারটি অবতরণ করে। পরে প্রধানমন্ত্রী খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও নতুন কয়েকটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এরপর বিকেল সোয়া চারটায় খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে সমবেত হাজার হাজার মানুষের সামনে বক্তব্য রাখেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে খাগড়াছড়িতে একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার ঘোষণা দিয়ে বলেন,এই অঞ্চলের পর্যটন সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হেবে। তিনি পার্বত্যাঞ্চলে  আদা হলুদ সহ উৎপাদিত কৃষি পণ্যের সংরক্ষন ও বাজারজাত করণ ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের স্বার্থ সংরক্ষণে পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দেন। প্রধানমন্ত্রী পার্বত্য শান্তিচুক্তির ৭৭ টি ধারার মধ্যে ৫৫ টি বাস্তবায়ন হয়েছে দাবি করে বলেন,বাকী ধারাগুলোও পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। একই সাথে ভূমি কমিশন আইনের সংশোধনী পাশ করে পাহাড়ে ভূমি বিরোধের সমাধান কেরে  স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে বলেও জানান তিনি।

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী কর্ণেল ফারুক খান, খাদ্য মন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহম্মেদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী দিপংকর তালুকদার, যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আমিন হোসেন গাড়ী, জেলা কমিটির সহ সভাপতি কংজরী মারমা, দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আবুল কাশেম, মহালছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রতন শীল, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শামছুল হক, গুইমারা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মেমং মারমা, মানিকছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মাঈন উদ্দিন, পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাথ দেব সহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
প্রধানমন্ত্রী বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, আমরা বয়স্ক ভাতা, বিধাব ভাতা, স্বামী পরিত্যক্ত ভাতা, প্রতিবন্ধিদের ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতা, দুস্থ মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতাসহ বিভিন্ন ভাতা দিয়ে আমরা দারিদ্র থেকে যেন সাধরণ মানুষ মুক্তি পায় সে ব্যবস্থা আমরা করে দিচ্ছি।

পাহাড়ে শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার পর ১৯৯৮ সালের ১০ ফেব্রুয়ারী খাগড়াছড়ির স্টেডিয়ামে শান্তিবাহিনীর অস্ত্র সমার্পণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সর্বশেষ এই পার্বত্য জেলায় এসেছিলেন তৎকালিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেড় দশক পর আজ  সোমবার নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডর উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করতে আরো একবার খাগড়াছড়ি আসলেন তিনি। ঐতিহাসিক সেই খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামেই   আয়োজিত  সমাবেশেও ভাষন  দিলেন।

দীর্ঘ ১৫ বছর পর প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে উৎসবের নগরে পরিণত হয় পার্বত্য এই শহর। সকাল থেকেই জেলার বিভিন্ন উপজেলা আর দুর্গম এলাকা থেকে হাজার হাজার মানুষ ছুটে আসে প্রধানমন্ত্রীকে একনজর দেখতে। দীর্ঘদিন ধরে ঝিমিয়ে পড়া স্থানীয় আওয়ামী লীগেও ফিরে আসে প্রাণচাঞ্চল্য।

সমাবেশে যোগ দেয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী প্রায় ৩ শ ২০ কোটির ১৩টি উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৫ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। উদ্বোধনী প্রকল্পগুলো হলো রামগড় ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল, আবহাওয়া অফিস, আলোক নবগ্রহ ধাতুচৈত্য বৌদ্ধ বিহার, বাংলাদেশ কৃষি গবেষনা ইনিষ্টিটিউট(বিনা), মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স, খাগড়াছড়ি সরকারী কলেজের একাডেমীক ভবন, মহালছড়ি স্কুলের একাডেমীক ভবন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের কমিউনিটি সেন্টার কাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স স্কুল ভবন, পানখাইয়া পাড়া মারমা উন্নয়ন সংসদের ছাত্রাবাস, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ব্যারাক ভবন, ১ হাজার মেট্রিক টন ধারন ক্ষমতা সম্পূণ্য খাদ্য গুদাম ও ভাইবোনছাড়া ব্রীজ । এছাড়া গ্রীড সাব স্টেশন, দীঘিনালার ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, তাইন্দং আশ্রায়ন প্রকল্প, শান্তি স্তম্ব ও চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

 pic-2

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ফুটবলের বিকাশে আসছে ডায়নামিক একাডেমি

পার্বত্য এলাকা রাঙামাটিতে ফুটবলকে আরও জনপ্রিয় করে তোলা, তৃনমূল পর্যায় থেকে ক্ষুদে ফুটবল খেলোয়াড় খুঁজে …

Leave a Reply