নীড় পাতা » ব্রেকিং » সুন্দর নগরী হিসেবে রাঙামাটিকে গড়তে চান গঙ্গামানিক

সুন্দর নগরী হিসেবে রাঙামাটিকে গড়তে চান গঙ্গামানিক

ganga-manikআসন্ন রাঙামাটি পৌরসভা নির্বাচনে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সমর্থনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পৌরসভা নির্বচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন ডা. গঙ্গা মানিক চাকমা। রাঙামাটি পৌর নির্বাচনে ৭ মেয়র প্রার্থীর মধ্যে তিনি হচ্ছেন একমাত্র পাহাড়ী প্রার্থী। গঙ্গা মানিক চাকমা জনসংহতি সমিতির প্রার্থী হলেও ব্যাক্তিগতভাবে তিনি রাঙামাটি জেলা রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্য,বৃহত্তর বনরুপা ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি। তিনি পেশায় হোমিও চিকিৎসক হলেও বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন। পৌর নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হলে পৌরবাসীর সেবা করার ক্ষেত্রে তার কি চিন্তা এ নিয়ে তার কাছ থেকে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেছেন পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডট কম’র প্রধান প্রতিবেদক বিজয় ধর।

‘বর্তমান সরকারের আমলে মেয়র নির্বাচিত হলে পৌরবাসীর উন্নয়নের জন্য কি কাজ করতে পারবেন?- এ প্রশ্নের উত্তরে ডা. গঙ্গা মানিক চাকমা বলেন,আমি একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও রাঙামাটি পৌরসভার একজন স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে রাঙামাটি পৌরবাসীর জন্য কাজ করে আসছি। আমার পেশা ডাক্তারী। তাই বিভিন্নভাবে আপামর জনসাধারনের দুর্দিনে সবসময় আমি পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। সে কারনে স্বতন্ত্র প্রাথী হলেও এ এলাকার জনগন আমাকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে দাঁড় করিয়েছেন। সেজন্য আমি এ এলাকার জনগনের সেবা করার সুযোগ পাবো বলে আশা করি। যদি আমি মেয়র নির্বাচিত হয় তাহলে পৌরবাসীর জন্য সর্বোচ্চ শ্রম দিয়ে সেবা করার চেষ্টা করবো।

‘পৌরসভায় বর্তমানে অ-উপজতীয় লোকসংখ্যা বেশী মেয়র নির্বাচিত হলে পৌর এলাকায় শান্তি-শৃংখলঅ বজায় রাখার ক্ষেত্রে কতটুকু ভুমিকা রাখতে পারবেন ?’- এ প্রসঙ্গে গঙ্গা মানিক চাকমা বলেন, বর্তমানে রাঙামাটি পৌরসভায় অ-উপজাতীয় লোকসংখ্যা বেশি হলেও নির্বাচনের ক্ষেত্রে এটি কোন বিষয় নয়। কারন নির্বাচন করতে গিয়ে আমি উপজাতীয় বা অ-উপজাতীয় হিসেবে এখানে বিবেচনা করতে চাইনা। রাঙামাটি পৌরসভার পাহাড়ী-বাঙালী সকলের সমর্থন নিয়ে আমি মেয়র নির্বাচিত হতে চাই। মেয়র নির্বাচিত হলে পাহাড়ী-বাঙালী সবাইকে সাথে নিয়ে এ এলাকার শান্তি-শৃংখলা বজায় রাখার জন্য সচেষ্ট থাকবো। আমার কাছে এখানে পাহাড়ী-বাঙালী বিভাজন থাকবে না, শান্তি শৃংখলা রক্ষা করতে আমার কোন সমস্যা হবে না।

‘পৌরসভায় ঠিকাদারী ও কর্মচারী সিন্ডিকেট রয়েছে’ এর সমাধান কিভাবে করবেন’- এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,রাঙামাটিতে বর্তমানে ৫৮ হাজারের অধিক ভোটার থাকলেও ১৮ হাজার করদাতা রয়েছে, যাদের কাছ থেকে ১৭% কর আদায় করা হয়। মেয়র নির্বাচিত হলে রাঙামাটি পৌর এলাকায় যেসব গরীব দুঃখী মানুষ রয়েছে এবং এর পাশাপাশি এখানকার সুশীল সমাজের প্রতিনিধি আছে এবং যাদের কর দেয়ার মতো সামর্থ্য আছে তাদের সাথে আলাপ-আলোচনা করে সবার কাছে গ্রহনযোগ্য ও সহনীয় কর নির্ধারন করে রাঙামাটিকে সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চালাবো।

ডা: গঙ্গা মানিক আরো বলেন, মেয়র হলে আমি চাইবো সত্যিকার অর্থে যারা ঠিকাদার এ এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন এবং সাধারন ঠিকাদাররা যাতে সমান সুযোগ পায় সেই সুযোগ তৈরী করতে। এখানে ঠিকাদারদের যে সিন্ডিকেট তা আমি ভেঙ্গে ফেলবো। কোন সিন্ডিকেট আমি রাখবো না।

‘সাধারন ভোটররা চিন্তিত মেয়র নির্বাচিত হলে দল বা ব্যক্তির উর্ধে উঠে কাজ করতে পারবেন কিনা’- এ প্রশ্নের জবাবে মেয়র প্রার্থী বলেন, সত্যিকার অর্থে আমি একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী। এখানে জনসংহতি সমিতি আমাকে আনুষ্ঠানিকভাবে সমর্থন দিয়েছে। কিন্তু জনসংহতি সমিতি সমর্থন দিলেও আমি কিন্তু প্রত্যেক জাতি ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে সকলের সমর্থন নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। তাছাড়া এখানে সংসদ নির্বাচনে যিনি এমপি প্রার্থী ছিলেন তিনি জনসংহতি সমিতির হলেও তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী। উপজেলা চেয়ারম্যান তিনিও স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। তারা যেহেতেু সকল দল মত নির্বিশেষে সকলের সাথে সমন্বয় রেখে কাজ করছেন তাই আমিও চাইবো সব দল মতের উর্ধে উঠে এ পৌরসভার সকল নাগরিকের জন্য সমান সুযোগ রেখে কাজ করার। এখানে জাতি ধর্ম-ধর্ম-বর্ণ বা কোন দল এখানে প্রাধান্য পাবে না কাজের ক্ষেত্রে।

নির্বাচন কতটুকু সুষ্ঠু বা শান্তিপুর্ন হবে বলে মনে করেন ? এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন,বর্তমান সময়ে সরকারের যে নির্বাচন কমিশনার সে নির্বাচন কমিশন যদি সত্যিকার অর্থে পৌরসভায় সুষ্ঠু নির্বাচন হোক তা চায়, এবং এখানকার পুলিশ বাহিনী,প্রশাসনসহ রির্টানিং অফিসারের কার্যালয় যদি সত্যিকার অর্থে নিরপেক্ষ থাকে, তাহলে রাঙামাটি পৌরসভায় সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ থাকবে এবং জনগন শান্তিপুর্ন পরিবেশে ভোট দিতে পারবে। যদি জনগন যদি শান্তিপুর্নভাবে ভোট দিতে পারে, তাহলে আমি নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা, যুবক গ্রেফতার

রাঙামাটিতে বুদ্ধি ও শারিরীক প্রতিবন্ধী এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। …

Leave a Reply