নীড় পাতা » ফিচার » পর্বতকন্যা » সাক্ষাতকারে নারী নেত্রী টুকু তালুকদার : পাহাড়ের নারীরা আগে থেকেই অর্থনীতিতে অবদান রেখে চলেছে

সাক্ষাতকারে নারী নেত্রী টুকু তালুকদার : পাহাড়ের নারীরা আগে থেকেই অর্থনীতিতে অবদান রেখে চলেছে

tuku-talukderপাহাড়ে নারীদের পথ চলা এখন আগের চেয়ে অনেক এগিয়েছে। সামাজিক চিন্তাচেতনা পরিবর্তনের ফলে এই পরিবর্তন হচ্ছে। এছাড়া এখন পাহাড়ের নারীরা শুধুমাত্র জুমক্ষেতে আবদ্ধ নন, তারা এখন পাহাড়ের বাইরে গিয়েও পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজের উন্নয়নের পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। আর পারিবারিকভাবে মেয়েরা যে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে, এখন তা আর সামাজিক বিচারের মধ্যে আবদ্ধ থাকছে না। তারা এখন আইনী অধিকার পাওয়ার লক্ষ্যে আদালতেরও শরনাপন্ন হচ্ছে। পাহাড়ে নারীদের পথচলা, উন্নয়নে বাধা ও নারীদের মানবাধিকার নিয়ে এক সাক্ষাতকারে এইসব কথা বলেছেন পার্বত্যাঞ্চলের নারী অধিকার নেত্রী ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা হৈমওয়ান্তি বাংলাদেশ এর চেয়ারপার্সন টুকু তালুকদার।
পারিবারিকভাবে নারীরা নির্যাতিত হলে সামাজিকভাবে যে বিচার করা হয় তা এখনও উম্যান ফেন্ডলি(নারীবান্ধব) নয় বলে অভিযোগ করে এই নারীনেত্রী বলেন, নারীরা আইনী সহযোগিতা পাওয়ার জন্য আদালতের শরনাপন্ন হলেও সামাজিকভাবে তাকে অপদস্থ করা হয়। মামলা করা পর তাকে পারিবারিক ও সামাজিকভাবে নিগ্রহ করা হয়। পাহাড়ি নারীদের ক্ষেত্রে বিচার ব্যবস্থায় সামাজিক সালিশের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া হলেও এখন আইনী সহযোগিতা পাওয়ার জন্য তারাও আদালতের শরনাপন্ন হচ্ছে। কিন্তু, এক্ষেত্রে আঞ্চলিক দলগুলো তাদের অবস্থানগত কারণে শক্তি প্রয়োগ করে সামাজিক বিচারে বাধ্য করছে। আবার পরবর্তী কালে হেডম্যানদের মাধ্যমে তা বৈধ করে নিচ্ছে। তিনি এর গঠনমূলক সমালোচনা করে বলেন, সামাজিক বিচারের মাধ্যমে এইসব রোধ করা গেলে অবশ্যই ভালো, কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নারীদের পক্ষে সামাজিক বিচার কাজ করে না।

তিনি বলেন, তথ্যের অবাধ প্রবাহের কারণে নারীরা নির্যাতন হলে তা এখন আর ঘরের চার দেওয়ালে বদ্ধ থাকে না। এতে নারীদের কথা বলার সাহস বাড়ছে। প্রত্যেকটা নির্যাতনের বিরুদ্ধে এখন তারা কথা বলছে। অর্থনীতিতে তারা এগিয়ে যাচ্ছে। নিজ সমাজ থেকে বের হয়ে বাইরে গিয়ে আয়মূলক কর্মকান্ডে যুক্ত হচ্ছে। নগরায়ন ও গ্লোবালাইজেশনের কারণে এই পরিবর্তন হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

পাহাড়ের নারীরা আগে থেকেই অর্থনীতিতে অবদান রেখে চলেছে উল্লেখ করে টুকু তালুকদার বলেন, মেয়েরা ট্রেডিশনাল জিনিসপত্র সংরক্ষণ, পিনন-খাদি নিজেরাই তৈরি করে বিক্রির ব্যবস্থা করছে, জমিতে কাজ করছে। আবার এখন প্রচুর নারী দেশের বিভিন্ন গার্মেন্টসে চাকরী করছে। এভাবে নারীরা নিজেদের অবস্থান করে যেতে কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু, নারীশ্রমিক হিসেবে নারীরা দেশের অর্থনীতিতে কত ভাগ অবদান রাখছে তার কোনো হিসাব এখনো পাওয়া যায়নি। এতে নারীদের শ্রমের কোনো স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে না।

পার্বত্যাঞ্চলে সব কমিউনিটির নারীদের জন্য কাজ করছেন মন্তব্য করে এই উন্নয়নকর্মী বলেন, এতে সম্প্রীতির বন্ধন দৃঢ় হচ্ছে। আমরা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটিতে সব কমিউনিটির লোক রেখেছে। আমাদের কাছে একজন নারী নারীই, সে পাহাড়ি হোক কিংবা বাঙালি। তাদের নির্যাতনের কথা আমরা তুলে ধরতে আমাদের কোনো কার্পণ্যতা নেই।

tuku-fc তথ্যের অবাধ প্রবাহের কারণে নারীরা নির্যাতন হলে তা এখন আর ঘরের চার দেওয়ালে বদ্ধ থাকে না। এতে নারীদের কথা বলার সাহস বাড়ছে। প্রত্যেকটা নির্যাতনের বিরুদ্ধে এখন তারা কথা বলছে। অর্থনীতিতে তারা এগিয়ে যাচ্ছে। নিজ সমাজ থেকে বের হয়ে বাইরে গিয়ে আয়মূলক কর্মকান্ডে যুক্ত হচ্ছে। নগরায়ন ও গ্লোবালাইজেশনের কারণে এই পরিবর্তন হচ্ছে।

তিনি বলেন, মেয়েরা আগের থেকে এখন অনেক সচেতন। তারা তাদের অর্থনৈতিক নিরাপত্তার জন্য কাজ করছেন। আয় করতে পারলে নিজেদের ভয়েস রেইজ(কণ্ঠস্বর বৃদ্ধি) পাবে। নারীরা সমাজ কিংবা পরিবারের একজন হেল্পিং হ্যান্ড হিসেবে কাজ করবে।

নারীদের একটি নিরাপদ স্থানে দেখতে চাই মন্তব্য করে তিনি বলেন, তারা যেখানে কাজ করবে তার পরিবেশ যাতে নিরাপদ হয়। নিরাপদ পরিবেশ পেলে নারীরা তাদের নিজ, পরিবার ও সমাজের পরিবর্তন করতে পারবে। নারীদের ডিসিশন মেকার হিসেবে কাজ করার স্বাধীনতা দিতে হবে। জাতীয় সংসদে নারী সদস্য বৃদ্ধি, আঞ্চলিক ও জেলা পরিষদগুলোতে নারী সদস্য বৃদ্ধি করতে হবে।

টুকু তালুকদার বলেন, যতদিন নারীর ক্ষমতায়ন এবং তার অধিকারগুলো নিশ্চিত করা যাবেনা ততদিন দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হবে । তিনি নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য বিলোপে সবার আন্তরিক সহযোগিতা ও অংশগ্রহণ কামনা করেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

‘হাতির মাথা সিঁড়ি’ পর্যটকদের নতুন আকর্ষণ

দেশের অধিকাংশ পর্যটন স্পটই প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট। যেগুলো সময়ে সময়ে পর্যটকদের জন্য আধুনিকায়ন করা হয়। তবে …

৩ comments

  1. গ্রেট টুকুদি………..পাহাড়ের নারী অধিকার আন্দোলনের পথিকৃত……….

  2. Elahi Bhai, Amazing!!! I can’t believe that it’s only one online news paper for CHT people. Thank you very much for your Edition…..Greet Boss

  3. Thank you Tuku di,
    Ami er aage ei bishoye eto shabolil alochona porini.

Leave a Reply

%d bloggers like this: