নীড় পাতা » আলোকিত পাহাড় » সাইকেলে বিশ্বভ্রমণকারি মুক্তিযোদ্ধা জাফর রাঙামাটিতে

সাইকেলে বিশ্বভ্রমণকারি মুক্তিযোদ্ধা জাফর রাঙামাটিতে

DSC04058শুধুমাত্র মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার ‘অপরাধে’পাকিস্তানের ভিসা না দেয়ার প্রতিবাদে বাইসাইকেলে বিশ্বভ্রমনে বের হওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর এখন পার্বত্য শহর রাঙামাটিতে। গত ১৬ জানুয়ারি তিনি রাঙামাটি আসেন।

১৯৭১ সালে ৪ নং সেক্টরে যুদ্ধ করা জাফর জানান, বিশ্ব ভ্রমণের সময় ভারত হয়ে পাকিস্তানে প্রবেশের সময় মুক্তিযোদ্ধা হওার কারণে বাধা পাওয়ার প্রতিবাদে পাকিস্তান বিরোধী মনোভার পোষণ করে প্রতিবাদ ভ্রমণ হিসেবে কাফনের কাপড় নিয়ে বাংলাদেশের সব কটি জেলা ভ্রমণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ।

বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর এই প্রতিবেদকের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তার আবেগ,উচ্ছ্বাসের কথা ব্যক্ত করেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় দাপুটে এই যোদ্ধা জীবনের এই শেষ প্রান্তে তার এই সফরে তার কোন কষ্টের ক্লেশ অনুভব করে না বলে জানান।

দীপ্ত কণ্ঠে তার এই প্রতিবাদী ভ্রমন প্রসঙ্গে তিনি বলেন শুধুমাত্র মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় তাকে পাকিস্তান ভ্রমণের ভিসা দেয়া হয় নাই। তাই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এমন তিক্ত প্রতিবাদ সারাদেশের মানুষের কাছে জানাতে চান তিনি। আর সে উদ্দেশ্যেকে সামনে নিয়ে তিনি এই ভ্রমণে নেমেছেন।

মুক্তিযোদ্ধা জাফর ২০১৩ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারী তার এই সফর শুরু করেন। ইতিমধ্যে তিনি ৪২ টি জেলা ভ্রমণ সম্পন্ন করেছেন। মাদারীপুর জেলার কালকিনী উপজেলার পূর্ব কমলাপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করা বয়োঃবৃদ্ধ এই বীরমুক্তিযোদ্ধা এই প্রতিবেদকের সাথে তার জীবনের কথা তুলে ধরে বলেন, তিনি সারাটা জীবন মানব সেবায় কাটিয়ে গেছেন এবং বাকী জীবনটাও এমনি করে মানব সেবায় কাটিয়ে দিতে যান। দৃঢ় কণ্ঠে পাকিস্তানের বিরোধীতা এবং ৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের মানবতা বিরোধী অপরাধীদের শাস্তির ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি জানান, রানা প্লাজায় ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্ধার কাজে অংশগ্রহণের ২০ দিনের অসীম সাহসিকতার গল্পও শোনান। বয়োবৃদ্ধ এই বীর মুক্তিযোদ্ধার এই দেশপ্রেম নতুন প্রজন্মের নিকট নতুন অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে।

প্রতিবেদক : মোঃ রবিউল ইসলাম,গণসংযোগ সহকারী, আনসার ও ভিডিপি

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নানিয়ারচর সেতু : এক সেতুতেই দুর্গমতা ঘুচছে তিন উপজেলার

কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির ৬০ বছর পর এক নানিয়ারচর সেতুতেই স্বপ্ন বুনছে রাঙামাটি জেলার দুর্গম তিন …

Leave a Reply