নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » সাংবাদিক শৈলেন দে’র পরলোকগমন

সাংবাদিক শৈলেন দে’র পরলোকগমন

SHoilen-deরাঙামাটির প্রবীণ সাংবাদিক,দৈনিক ভোরের কাগজ ও দৈনিক আজাদী’র সাবেক রাঙামাটি জেলা প্রতিনিধি শৈলেন দে আর নেই। বুধবার সকালে রাঙামাটি সদর হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৭ বছর। তিনি এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তান,স্ত্রী,মা,ভাই বোনসহ অসংখ্য গুনগ্রাহি রেখে গেছেন।

তার স্বজনরা জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে তিনি হঠাৎ করে অসুস্থ বোধ করলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় তিনি কয়েকবার বমি করেন। হাসাপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তিনি তার অবস্থার কিছুটা উন্নতিও হয়। কিন্তু বুধবার সকাল থেকে তার অবস্থা ধীরে ধীরে খারাপ হতে থাকে। এক পর্যায়ে তার রক্তচাপ একেবারে নীচে নেমে যায় এবং তিনি সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলেন। চিকিৎসকদের সকল প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে ১২টার কিছু আগে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় আসামবস্তি মহাশ্মশ্মানে তার মরদেহের সৎকার অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি দীর্ঘদিন রাঙামাটির স্থানীয় দুই পত্রিকা,দৈনিক গিরিদর্পণ ও দৈনিক রাঙামাটির বার্তা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

সাংবাদিক শৈলেন দে’র প্রয়ানের খবর শুনে তাকে শেষ বারের মতো দেখতে ছুটে আসেন রাঙামাটির মহিলা সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু,রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা,সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদারসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেনী পেশার অসংখ্য মানুষ।

সাংবাদিক শৈলেন দে’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও তার পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছে রাঙামাটি প্রেসক্লাব,রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটি,রাঙামাটি সাংবাদিক ইউনিয়ন,রাঙামাটি সাংবাদিক ফোরামসহ রাঙামাটির সকল সংবাদকর্মীরা।

ছবি : সাংবাদিক শৈলেন দে

Micro Web Technology

আরো দেখুন

লংগদুতে মাছের পোনা অবমুক্ত

রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদে কার্প জাতীয় মাছের উৎপাদন ও বংশবৃদ্ধির লক্ষে লংগদুতে পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। …

Leave a Reply