নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » সশস্ত্র ক্যাডারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি

সশস্ত্র ক্যাডারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি

অর্জুনমনি চাকমার অভিযোগের পর এবার অভিযোগ দিলেন সরকার দলীয় প্রার্থী এসএম চৌধুরী। সোমবার রিটার্নিং অফিসারের কাছে এসএম চৌধুরীর বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ এনে লিখিত আবেদনে সেনা মোতায়েন করার দাবি জানান এসএম চৌধুরী। এর পর অর্জুন মনি চাকমাকে ইউপিডিএফ এবং জেএসএস সমর্থিত প্রার্থী উল্লেখ করে তার পক্ষে সশস্ত্র মহড়া ও ভোটারদের হুমকী প্রদানের অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করেছেন কাউখালীর আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী এস এম চৌধুরী। তিনি কাউখালী উপজেলার বিভিন্ন পাহাড়ী অধ্যুষিত এলাকায় আঞ্চলিক সংগঠনের সশস্ত্র সদস্যরা অস্ত্র নিয়ে বাড়ী বাড়ী গিয়ে মহড়া দিচ্ছে এবং অপহরণ ও প্রাণনাশের হুমকী দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন।

অভিযোগে বলা হয়, দল দুটির সশস্ত্র ক্যাডাররা উপজেলার উপজাতীয় অধ্যুষিত প্রত্যন্ত গ্রাম, ঘাগড়া ইউনিয়নের পানছড়ি পাড়া, উল্টাপাড়া, তালুকদার পাড়া, চেলাছড়া পাড়া, লেভা পাড়া/নোয়াপাড়া, যৌথ খামার, হারাঙ্গী পাড়া, হাঙ্গীমুখ পাড়া, ঘিলাছড়ি পাড়া, শামকছড়ি, পেরাছড়া। ফটিকছড়ি ইউনিয়নের শুকনাছড়ি পাড়া, রক্তছড়ি, ডাবুয়া, ডলুপাড়া, বর্মাছড়ি, নাভাঙ্গা ইত্যাদি গ্রামে ভোটারদের অস্ত্র প্রদর্শন করে হুমকি দিচেছ। নির্বাচনের দিন মারমা অধ্যুষিত এলাকায় ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য হুমকি প্রদান করা হচ্ছে, ইতিমধ্যে এলাকা গুলোতে জনপ্রতিনিধি এবং গন্যমান্য ব্যক্তিদের ডেকে নিয়ে তাদের সমর্থিত প্রার্থী অর্জুণ মনি চাকমাকে (আনারস মার্কা) ভোট না দিলে তাদের জান মালের ক্ষতি করবে বলে হুমকী প্রদর্শন করেছে বলেও দাবি করা হয়।

অভিযোগ বলা হয়, নির্বাচনের দিন ঘিলাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, পানছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র, নাভাঙ্গা বিদ্যালয় কেন্দ্র সমূহ জোর পূর্বক দখল করে তাদের সমর্থিত প্রার্থীর পে ব্যালট পেপার সীল মারা এবং যে সমস্ত ভোট কেন্দ্রে মারমা ও বাঙ্গালী ভোটার সংখ্যাগরিষ্ঠ সেই সব কেন্দ্রে ভোটারদের যাওয়া আসার পথে সশস্ত্র ক্যাডারের মাধ্যমে বাধা সৃষ্টি করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এলাকাবাসী এমনও আশংকা করেছেন যে, তাদের নির্দেশ অমান্যকারীদের নির্বাচনের পূর্বে অপহরণসহ বিভিন্ন শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে।

অভিযোগে , সশস্ত্র ক্যাডারদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনী প্রয়োজনীয় কার্যকরী ব্যবস্থা সহ নির্বাচনের দিন ভোটারদের নিরাপত্তামুলক ব্যবস্থা এবং ভোট কেন্দ্র সমূহ নিরাপত্তা জোরদার করা না হয় তাহলে অত্র উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন না হওয়ার আশংকা প্রকাশ করা হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নানিয়ারচর সেতু : এক সেতুতেই দুর্গমতা ঘুচছে তিন উপজেলার

কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির ৬০ বছর পর এক নানিয়ারচর সেতুতেই স্বপ্ন বুনছে রাঙামাটি জেলার দুর্গম তিন …

Leave a Reply