নীড় পাতা » ব্রেকিং » সরকার শত বাঁধার মুখে পাহাড়ে উন্নয়ন করে যাচ্ছে : দীপংকর

সরকার শত বাঁধার মুখে পাহাড়ে উন্নয়ন করে যাচ্ছে : দীপংকর

রাঙামাটির সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সদস্য দীপংকর তালুকদার বলেছেন, বর্তমান সরকার শত বাঁধার মুখেও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পার্বত্য রাঙামাটিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে থামিয়ে দিতে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হলেও এলাকার মানুষের আকাক্সক্ষার ভিত্তিতে উন্নয়ন কর্মকান্ড চলমান থাকবে। তিনি স্কুলের শিক্ষকদের সঠিক সময়ে স্কুলে উপস্থিত থেকে কোমলমতি শিশু কিশোরদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলার আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সভাকক্ষে জেলার মাধ্যমিক, মাদ্রাসা, ও কলেজস্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সততা ষ্টোর চালু করতে জেলা পরিষদের আর্থিক অনুদান এবং জেনারেশন ব্রেক-থ্রু প্রকল্পের আওতায় মাধ্যমিক ও দাখিল স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ল্যাপটপ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ঢাকার (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) উপ-পরিচালক আনিকা রাইসা চৌধুরী, জেনারেশন ব্রেক-থ্রু প্রকল্প পর্যায়-২ মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক দিল আফরোজা বিনতে আছির, জেলা পরিষদ সদস্য সাধন মনি চাকমা, পরিষদ সদস্য ত্রিদীব কান্তি দাশ, পরিষদ সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, পরিষদ সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া, পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা উত্তম খীসা।

সভাপতির বক্তব্যে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, শিক্ষকরা হচ্ছে জ্ঞানের ভান্ডার। তাই শিক্ষার্থীদের সেই ভান্ডারের আলোয় আলোকিত করে তুলতে হবে। শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের যেভাবে গড়ে তুলবে শিক্ষার্থীরা সেভাবেই গড়ে উঠবে। তাই তাদের মানসম্মত শিক্ষা প্রদান করে মানুষের মতো মানুষ করে গড়তে হবে। তিনি আরও বলেন, স্বল্প পরিসরে হলেও শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে এই সততা স্টোর খোলা হচ্ছে। এটির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা যদি তাদের শিক্ষা লাভের ক্ষেত্রে উপকৃত হয় তাহলে এটি সফল হবে। তিনি সততা স্টোরের উন্নয়নে শিক্ষকদের পরিষদ হতে সহযোগিতা প্রদানের আশ^াস দেন।

পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যায়নরত কিশোরীদের স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কিশোরী কর্ণারের জন্য শিক্ষা অধিদপ্তর হতে রাঙামাটির ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের হাতে ল্যাপটপ ও সততা ষ্টোর চালুর জন্য রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ হতে প্রতিটি স্কুলে ১৫ হাজার টাকা করে মোট ৯০টি স্কুলে ১৩লক্ষ ৫০হাজার টাকার আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাইয়ে ওষুধ সম্পর্কে মতবিনিময় সভা

বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি কর্তৃক নকল, ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সম্পর্কে জনসচেতনতা ফিরিয়ে আনতে …

Leave a Reply