নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » সরকারি চাল কিনে মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পেল কালু হাজ্বী

সরকারি চাল কিনে মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পেল কালু হাজ্বী

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে ভিজিডি’র ১৫ বস্তা চালসহ আটক কালু হাজ্বী নামের এক ব্যক্তিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয় থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তদন্ত শেষে সোমবার রাত নয়টার দিকে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাদিয়া আফরিন কচি জানিয়েছেন, বিষয়টি যাচাই-বাচাই করে দেখা গেছে যে, উপকারভোগীরাই ভিজিডি’র চালগুলো আটক কালু হাজ্বীকে বিক্রয় করেছেন। এখানে জনপ্রতিনিধিদের জড়িত থাকার বিষয়ে কোনপ্রকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। এ জন্য আটক কালু হাজ্বীর কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ওই সব উপকারভোগীদের চিহ্নিত করতে ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এর পূর্বে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বাইশারী বাজার সংলগ্ন বেইলী ব্রীজ থেকে হলদ্যাশিয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত তজিমুদ্দিনের পুত্র মো. কালু প্রকাশ কালু হাজ্বীকে টমটম ভর্তি ১৫ বস্তা ভিজিডি’র চালসহ আটক করার পর বাইশারী পুলিশের কাছে সোপর্দ করে স্থানীয় ৫নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো. নুরুল আজিম।

ইউপি সদস্য নুরুল আজিম জানিয়েছেন, সোমবার দুপুরের দিকে একটি টমটম গাড়িতে করে সরকারি চাল নিয়ে বাইশারী বাজার হয়ে ঈদগড় সড়কের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় আমার সন্দেহ হলে আশপাশে থাকা লোকজনদের নিয়ে ১৫ বস্তা ভিজিডি’র চাল, টমটম গাড়ি, ড্রাইভার লিয়াকত আলী ও চালের মালিক মো. কালুকে আটক করে বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়। একই দিন বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভিজিডি কার্ডধারী নারীদেরকে এসব সরকারি চাল বিতরণ করা হয়।

চালসহ আটক মো. কালু জানান, তিনি চালগুলো ভিজিডি কার্ডধারী উপকারভোগীদের কাছ থেকে প্রতি বস্তা ১ হাজার টাকা করে ক্রয় করেছেন। এদিকে ভিজিড়ির কার্ডধারীদেও জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা নিজেদের প্রয়োজনে চালগুলো বিক্রয় করেছেন।

বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. লিয়াকত আলী জানান, ইউপি সদস্য নুরুল আজিমের সংবাদের ভিত্তিতে তারা বাইশারী বাজার থেকে ১৫ বস্তা সরকারি চাল জব্দ করা হয়। এবং সংশ্লিষ্টতা থাকায় কালু হাজ্বী নামের এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। পরে বিষয়টি নাইক্ষ্যংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানোর পর আটক মো. কালুকে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলম বলেন, সোমবার সকালে ইউনিয়নের ৬৬০ জন উপকারভোগীদের মাঝে ভিজিডি’র চাল বিতরণ করা হয়। কিন্তু উপকারভোগীদের কয়েকজন পথিমধ্যে কালু হাজ্বী নামের এক ব্যক্তিকে চাল বিক্রয় করে দেন। বিষয়টি ইউপি সদস্য নুরুল আজিমের নজরে আসলে সত্যতা যাচাইয়ের পর পুলিশে সোপর্দ করে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে এক দিনেই ১১ জনের করোনা শনাক্ত

শীতের আবহে হঠাৎ করেই পার্বত্য চট্টগ্রামের রাঙামাটি জেলায় করোনা সংক্রমণে উল্লম্ফন দেখা দিয়েছে। বিগত কয়েকদিনের …

Leave a Reply