নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » সবাই একযোগে কাজ করলে দ্রুত দুর্গম এলাকার উন্নয়ন সম্ভব

সবাই একযোগে কাজ করলে দ্রুত দুর্গম এলাকার উন্নয়ন সম্ভব

dighinala-(khagrachari)-picসমতল এলাকার চেয়ে এ অঞ্চল অনেকটাই দূর্গম। তবে এখানে রয়েছে প্রাকৃতিক সম্পদ। সবাই একযোগে কাজ করলে এলাকার দ্রুত উন্নয়ন সম্ভব। আর এই দূর্গম এলাকার মধ্যে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে যারা কাজ করছেন তারা প্রশংসার দাবীদার। সোমবার খাগড়াছড়ির দীঘিনালার বাবুছড়ার বাঘাইছড়ি দুআর এলাকায় কনসার্ন সার্ভিসেস ফর ডিসআ্যাবলেড (সিএসডি) এর পার্বত্য শাখার কার্যক্রম পরিদর্শনে এসে কথাগুলো বলেন ভারতীয় হাই কমিশনের সহকারী হাই কমিশনার শ্রী সোমনাথ ঘোষ। এসময় তিনি সংগঠনটির মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের মানবিক উন্নয়নে প্রয়োজনীয় সহযোগীতার আশ্বাস দেন।
সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার শুরুতে সিএসডির কেন্দ্রীয় শাখার সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ দাশ গুপ্ত পার্বত্য শাখার কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করেন।

তিনি জানান, প্রতিবন্ধীরা বোঝা নয়, প্রতিবন্ধীরা প্রতিদ্বন্ধি হয়ে উঠতে পারে কারো সহযোগিতা পেলে। এই চিন্তা থেকেই তিনি নিজস্ব অর্থায়নে প্রতিবন্ধীদের কারিগরি শিক্ষাসহ মানবিক উন্নয়নে চলতি বছরের জানুয়ারী থেকে দীঘিনালায় কাজ শুরু করেন। এখানে আইটি শিক্ষার জন্য ৮টি কম্পিউটার দিয়ে প্রশিক্ষন দেওয়া হচ্ছে। ১৭টি সেলাই মেশিনে সেলাই প্রশিক্ষন দেওয়া হচ্ছে। হস্তশিল্পের জন্য নরসিংদী থেকে ৬টি তাঁত এনে স্থাপন করা হয়েছে; চলছে সেগুলোতেও প্রশিক্ষন। এছাড়াও চারুকারু ও গান শিখানোর ব্যবস্থাও রয়েছে। দূর্গম এলাকার প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের অসুবিধার কথা ভেবে গড়ে তোলা হয়েছে একটি ছাত্রাবাস। সেখানে ১৭ জন ছেলে মেয়ে আবাসিক সুবিধা ভোগ করছে। এদের মধ্যে আবার চারজন পড়ছে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে।

প্রতিবন্ধীদের নিয়ে বিশ্বজিৎ দাশ গুপ্তের কার্যক্রম দেখে মুগ্ধ সোমনাথ ঘোষ। প্রশিক্ষন কাজে রয়েছে বাক প্রতিবন্ধী, শ্রবন প্রতিবন্ধীসহ শারিরিক প্রতিবন্ধীও।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বেইলি সেতু ভেঙে রাঙামাটি-বান্দরবান সড়ক যোগাযোগ বন্ধ

রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলায় রাঙামাটি-বান্দরবান প্রধান সড়কের সিনামা হল এলাকার বেইলি সেতু ভেঙে পাথর বোঝাই ট্রাক …

Leave a Reply