সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ ঠেকাতে সেনাবাহিনীর প্রচারণা

খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে সম্প্রতি আঞ্চলিক দলগুলো নানা কর্মসূচীর কথা বলে সন্ত্রাসী কায়দায় ব্যাপক হারে চাঁদাবাজি করার অভিযোগের ভিত্তিতে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ রুখতে সেনাবাহিনী ব্যাপক প্রচারণা শুরু করেছে। মহালছড়ি সেনা জোনের উদ্যেগে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ জনগণের মাঝে মাইকিং ও লিফলেট বিলি করে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার আহবান জানানো হয়। ‘আর নয় চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস এবং চাঁদাবাজমুক্ত মহালছড়ি গড়তে সহায়তা করুন’ লিফলেটে এ আহবান জানানো হয় এবং চাঁদাবাজ সম্পর্কিত তথ্য দিলে তথ্য দাতার নাম ও পরিচয় গোপন রাখা সহ প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা প্রদানের আশ^াস প্রদান করা হয়।

এ ব্যাপারে মহালছড়ি জোন অধিনায়ক লে: কর্ণেল মো: হুমায়ূণ কবীর পিএসসি’র সাথে কথা বললে তিনি জানান, সম্প্রতি এলাকায় সন্ত্রাসী কায়দায় ব্যাপক হারে চাঁদাবাজি শুরু হয়েছে। যা আমরা এলাকার জনগণ থেকে প্রচুর অভিযোগ পাচ্ছি। এদের ভয়ে তাঁরা কেউ মুখ খুলতে পারছেনা। তাই সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ ঠেকাতে উপজেলার প্রত্যেকটি এলাকায় গিয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে সাধারণ জনগণকে সচেতন ও উদ্বুদ্ধ করতে প্রাথমিক কৌশল হিসেবে এ উদ্যেগ নেওয়া হয়েছে। এ কৌশল অবলম্বন করে কতটুকু সফল হবেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ ঠেকানো শুধু সেনাবাহিনীর একার কাজ নয়। এদের প্রতিরোধ করতে সবার দায়িত্ব রয়েছে।

সকলকে সোচ্চার হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। সকল স্তরের জনগণের সহযোগিতা পেলে অবশ্যই সফল হওয়া যাবে। এতেও যদি কোন সফলতা না আসে তাহলে এলাকার শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার স্বার্থে সন্ত্রাস আর চাঁদাবাজ ঠেকাতে যা যা করণীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে তা করা হবে বলে জানান তিনি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিদ্যুৎ সুবিধাবঞ্চিত মহালছড়ি সদরের ২ গ্রামের মানুষ

আধুনিক প্রযুক্তির ক্রমবিকাশে পাল্টে যাচ্ছে দুনিয়া। প্রতিনিয়ত উদ্ভাবন হচ্ছে নতুন নতুন আবিষ্কার। মানুষের জনজীবনে পড়ছে …

Leave a Reply