নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি

সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি

khgসন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, নৈরাজ্য ও সাজেকে পর্যটন এলাকায় আগত পর্যটকদের অব্যাহত হুমকি ও ভয় প্রদর্শনের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ পালিত হয়েছে। সোমবার সকাল শহরের শাপলা চত্বরে খাগড়াছড়ি জেলা সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ প্রতিরোধ কমিটির ব্যানারে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

ঘন্টাব্যাপী চলা এই মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র সন্ত্রাস চাঁদাবাজ প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক মোঃ রফিকুল আলম, সদস্য সচিব এসএম শফি, চেম্বার অব কমার্সের প্রতিনিধি সুদর্শন দত্ত, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চন্দ্র শেখর দাশ, বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের জেলা কমিটির যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা কামাল, সাংবাদিক আজিমুল হক প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, একটি গোষ্ঠী সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে উঠে পড়ে লেগেছে। কিন্তু সব জেনেও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। কলার ছড়া থেকে যানবাহন সব ক্ষেত্রে চাঁদাবাজি করছে। চাঁদা না দিলে হুমকি, অপহরণের মত ঘটনা ঘটছে। বক্তারা বলেন, ‘সাজেকে এখন প্রতিদিন পর্যটক যাওয়া আসা করছে। এই কারণে জেলার হোটেল, মোটেল, যানবাহনের চাহিদা বেড়েছে। কিন্তু একটি পক্ষ এই উন্নতি সহ্য করতে পারছে না বলে নানাভাবে ষড়যন্ত্র করছে। গাড়ি পুড়িয়ে দিচ্ছে, পর্যটকদের হুমকি দিচ্ছে। বক্তারা প্রশাসনকে আগামী ৪৮ ঘন্টার সময়সীমা বেঁধে দিয়ে চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি ঘোষণার হুঁশিয়ারি দেন। এদিকে একই খাগড়াছড়ি পৌর শহরে সকাল থেকে চলা আধাবেলা হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে। কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। হরতাল চলাকালে শহরে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ ছিলো।

উল্লেখ্য, ১৭ মার্চ মুঠোফোনে যানবাহন মালিকদের সাজেকে পর্যটকবাহী গাড়ি যেতে নিষেধ করা হয়। অন্যথায় গাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার হুমকির প্রেক্ষিতে সাজেকে পর্যটকবাহী যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply