নীড় পাতা » ব্রেকিং » সংগ্রামের মধ্য দিয়েই পথ খুঁজে নিতে হবে

সংগ্রামের মধ্য দিয়েই পথ খুঁজে নিতে হবে

chinuuuuনারী দিবস একটি সংগ্রামের ফসল। সমাজ ও রাষ্ট্রকে উন্নত করতে চাইলে পুরুষের সাথে সাথে নারীদের ভূমিকা একান্ত প্রয়োজন। সংগ্রামের মাধ্যমে নারীদের পথ খুঁজে নিতে হবে। তাই সরকার নারীদেরকে সংসদ থেকে শুরু করে ইউনিয়ন পর্যন্ত নির্বাচন করার সুযোগ করে দিয়েছে। দেশকে মধ্য আয়ের দেশে উন্নত করতে চাইলে পুরুষের সাথে সাথে নারীদের অংশগ্রহণ করা প্রয়োজন। নারীদের অংশগ্রহণ ছাড়া দেশকে মধ্য আয়ের দেশে উন্নত করা সম্ভব নয়। নারীদের যার যার অবস্থানে থেকে দেশ গড়ার কারিগর হিসেবে নিজেকে যোগ্য করে তুলতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন সংরক্ষিত মহিলা সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু। তিনি বলেন, সামাজিক অন্তরায় থেকে নারী সমাজ এখনো অনেকটা পিছিয়ে আছে। নারীদের অধিকার আদায়ে আমাদের সকলকে আরো আন্তরিক হতে হবে। সেই সাথে বাড়াতে হবে সহযোগিতার হাত।

‘অধিকার মর্যাদায়, নারী-পুরুষ সমানে সমান’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মঙ্গলবার রাঙামাটি জেলা প্রশাসক ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০১৬ উদযাপন উপলক্ষে জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্ত্যবে মহিলা সাংসদ এ মন্তব্য করেন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিনের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মোস্তফা জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল চিত্ত রঞ্জন পাল, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা হোসনে আরা বেগম, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা হিমাওয়ান্তীর নির্বাহী পরিচালক টুকু তালুকদার, সনাকের সদস্য এড: সুষ্মিতা চাকমা, বাংলাদেশ রিগ্যাল এইড এর পক্ষে এড: পারভিন আক্তার প্রমূখ।

সভায় সাংসদ বলেন, সামাজিকভাবে নারীদেরকে নারী হিসেবে মর্যাদা আমাদের দিতে হবে। সে বাঙালি নারী হউক বা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী। বিশ্ব নারী দিবসে ‘নারীর ক্ষমতায়ন, নারী নির্যাতন রোধে জন সচেতনতা সৃষ্টি, নারীর প্রতি বৈষম্য দূরীকরণ, ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে নারীকে স¤পৃক্ত করার প্রতি অধিকতর জোর দেন তিনি।

দিবসটি উপলক্ষে সকালে রাঙামাটি পৌরসভা প্রাঙ্গণ থেকে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিনের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয় র‌্যালিটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে স্থানীয় নাগরিক সমাজ, সরকারি বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তা কর্মচারী ও মহিলা সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন বলেন, অর্থ দিয়ে সব কিছু মাপা যায় কিন্তু মায়ের শ্রম মাপা যায় না। একটি সন্তান লালনে মা যে শ্রম দিয়ে যায় তা অর্থের সাথে তুলনা করা যাবে না। তাই তাদেরকে সঠিক মর্যাদা দিতে হবে। এর জন্য যাদের সহযোগিতা প্রয়োজন তারা হলো পুরুষ। এখনো সমাজে পুরুষেরা নারীদেরকে হেয় চোখে দেখে। যা কারো কাম্য নয়। পুরুষেরা সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসলে নারীরা আরো উন্নত হতে পারবে। তাই তাদের মর্যাদা রক্ষায় পুরুষকে সচেতন হতে হবে।
আলোচনা সভা শেষে অতিথিরা মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে বরাদ্দকৃত রাঙামাটির ১০ দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন ও আলোড়ন নারী উন্নয়ন সংস্থার পক্ষ থেকে রাঙামাটির ৪জন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত একক অভিনয় এবং নৃত্য মঞ্জুল আলম মঞ্জু, একক অভিনয় পম্পি বড়–য়া, অভিনয় এবং নৃত্য বন্যা এবং দেশাত্মবোধক গানে প্রত্যয় বড়–য়া ও সন্তানদের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সাফল্য অর্জন করায় সফল মা হিসেবে আলোড়ন নারী উন্নয়ন সংস্থার সদস্য ঝর্না বড়–য়াকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন। এরপর স্থানীয় নৃত্য শিল্পীদের পরিবেশনায় পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এরপরে বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি সংগঠনসমূহের অংশগ্রহণে জেন্ডার সংশ্লিষ্ট উদ্যোগ অর্জন এবং স্ব প্রতিষ্ঠানের সেবা সংক্রান্ত তথ্য উপাত্ত প্রদর্শন ও উদপাদিত পণ্যর স্টল প্রদর্শনী করেন এমপি ফিরোজা বেগম চিনু ও জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিনসহ অন্য সকল অতিথিবৃন্দ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে মুক্তিযোদ্ধার জয়

রাঙামাটি জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে রাঙামাটি বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে বড় জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু …

Leave a Reply