নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » শিল্পমন্ত্রী’র বক্তব্যে ‘আদিবাসী’, প্রতিবাদ ছাত্র আন্দোলনের

শিল্পমন্ত্রী’র বক্তব্যে ‘আদিবাসী’, প্রতিবাদ ছাত্র আন্দোলনের

chatro-andolonসরকারি নির্দেশনার বাইরে গিয়ে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, রাঙামাটিতে অনুষ্ঠিত এসএমই মেলায়,গত ২৬ ডিসেম্বর, প্রধান অতিথির বক্তব্যে, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সমূহকে ‘আদিবাসী’ উল্লেখ করায়, এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তব্যের ওই অংশটুকু ‘প্রত্যাহারে’র দাবি জানিয়েছে পার্বত্য সমঅধিকার ছাত্র আন্দোলন নামের একটি বাঙালীভিত্তিক সংগঠন।

সংগঠনটির সাংগঠনিক সম্পাদক তাজুল ইসলাম নাজিম সাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শুক্রবার এসএমই মেলার উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে মাননীয় মন্ত্রী বলেন শিল্প মন্ত্রণালয় সবসময় আদিবাসীদের পাশে থাকবে ও ‘আদিবাসী’ জনগোষ্ঠীর ঐতিহ্যগত দক্ষতা কাজে লাগাতে সরকার কাজ করছে’ বলে বক্তব্য রাখেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশে বসবাসরত উপজাতী জাতিসত্তাকে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে উপজাতী, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তাছাড়া আদিবাসী শব্দটি ব্যবহার না করতে সরকারের পক্ষ থেকে পরিপত্র জারীকরা হয়েছে। গত ৭ই আগষ্ট ২০১৪ ইং তারিখে সরকারের পক্ষ থেকে জারীকৃত পরিপত্রে আদিবাসী দিবস পালনে নিষেধ, বিভিন্ন মিডিয়ায় আদিবাসী শব্দ ব্যবহার না করতে বলা হয়।’

‘আদিবাসী দাবীর পেছনে রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্বের হুমকি ও উপজাতীয় সম্প্রদায় সমূহকে ব্যবহার করে দেশী বিদেশী ষড়যন্ত্র কাজ করছে’-দাবি করে বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আওয়ামীলীগের একজন বর্ষিয়ান নেতা ও সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রীর মুখে বাংলাদেশের উপজাতীয় সম্প্রদায়গুলোকে আদিবাসী বলে সম্মোধন করে সংবিধান বিরোধী বক্তব্য দেওয়ায় আমরা পার্বত্যবাসী হতাশ হয়েছি।

বিবৃতিতে, মন্ত্রীর ওই বক্তব্য প্রত্যাহার, অদুর ভবিষ্যতে কেউ যেন এইধরনের বক্তব্য দিতে না পারে এবং দেশের প্রিন্ট ও ইলেক্টনিক্স মিডিয়াগুলো যাতে ‘আদিবাসী’ শব্দ ব্যবহার করতে না পারে সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানানো হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বান্দরবানে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাচিং প্রু মারমার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা …

Leave a Reply