নীড় পাতা » ফিচার » ক্যাম্পাস ঘুড়ি » শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানবান্ধব হওয়ার পরামর্শ

শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানবান্ধব হওয়ার পরামর্শ

pic-01রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মো. সামসুল আরেফিন বলেছেন, আমরা যদি আধুনিক প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত না হই, তাহলে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবনা। একটি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পিছনে রয়েছে বিজ্ঞানের অনস্বীকার্য অবদান রয়েছে। উন্নত প্রযুক্তি ও বিজ্ঞানের মাধ্যমে দিন দিন আমাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত হচ্ছে। ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী নানা প্রজেক্ট যদি জাতীয় কাজে লাগাতে পারতাম তবে দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হতো। শিক্ষার্থীদের নতুন নতুন উদ্ভাবিত প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। তিনি শিক্ষার্ীদের বিজ্ঞানবান্ধব হওয়ারও পরামর্শ দেন।

রাঙামাটিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ সমাপনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। মঙ্গলবার বিকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে প্রাঙ্গণে সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোস্তফা জামানের সভাপতিত্বে এবং নেজারত ডেপুটি কালেক্টর নাজমুল ইসলাম রাজুর সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গুলজার আহম্মেদ খান,বিলাইছড়ি উপজেলার নির্বাহী অফিসার মাহিদুর রহমান, রাঙামাটি সরকারি কলেজের প্রভাষক শান্তনু চাকমা, রাঙামাটি সরকারি কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক আলো রানী আইচ, রানী দয়াময়ী স্কুলের প্রধান শিক্ষক রণতোষ মল্লিকসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

শেষে প্রধান অতিথি বিজ্ঞানমেলায় অংশগ্রহণকারিদের মধ্যে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। স্কুল পর্যায়ে প্রথম স্থান অধিকার করে শহীদ আব্দুল আলী একাডেমি,তাদের প্রকল্পটি ছিলো পরিত্যক্ত দ্রব্য থেকে জৈব সার ও প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদন। দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ,তাদের প্রকল্পটি ছিলো ‘এনার্জি বাল্ব ফুটবল’। তৃতীয় স্থান লাভ করে রাঙামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়,তারা সিকিউরিটি সিস্টেম নিয়ে একটি প্রকল্প উপস্থাপন করেছিলো। কলেজ পর্যায়ে প্রথম স্থান লাভ করে লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ,তারা টুরিস্ট হেলপার বিষয়ক একটি প্রকল্প উপস্থাপন করে। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান লাভ করে রাঙামাটি সরকারি কলেজ।
পুরষ্কার বিতরণের পর অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply