নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » শিক্ষক দম্পতির বেতনের টাকায় ত্রাণ বিতরণ

দীঘিনালায়

শিক্ষক দম্পতির বেতনের টাকায় ত্রাণ বিতরণ

করোনা পরিস্থিতিতে এক শিক্ষক দম্পতি নিজেদের বেতনের টাকায় দীঘিনালায় দুস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। রোববার উপজেলার দুর্গম শিবছড়ি এলাকার দরিদ্র জুমিয়া পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন কার্তিক ত্রিপুরা ও জেবলি ত্রিপুরা।

সাথে পোমাং পাড়া এবং জামতলি এলাকার দরিদ্র পরিবারের মাঝেও ত্রাণ দেওয়া হয়। এ দম্পতি ৫০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরন করেন। প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, ১ লিটার তেল, ৫’শ গ্রাম পিয়াজ, ৫’শ গ্রাম লবন, ৫’শ গ্রাম ডাল এবং ৫টি দিয়াশলাই দেওয়া হয়।

ত্রাণ পেয়ে জিবরক্তি ত্রিপুরা (৭০) জানান, তাঁর বৃদ্ধ স্বামী অসুস্থ। নিজেও এখন তেমন কাজকর্ম করতে পারেননা। এমন সময় ত্রাণ পেয়ে তিনি এ দম্পতির জন্য আশির্বাদ করেন।

ভারতী ত্রিপুরা (৬০) জানান, নিজে অন্যের কাজ করে জীবিকা চালাতেন। কিন্তু এখন কোন বাড়িতে যাওয়া যায়না তাই কাজও বন্ধ। এমন সময় এ ত্রাণ তাঁর পরিবারের জন্য অনেক উপকারে আসবে।

নিজেদের অর্থায়নে ত্রাণ বিতরণকারী শিক্ষক দম্পতি হলেন, খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার জারুলছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কার্তিক ত্রিপুরা এবং মহালছড়ি উপজেলার ধুমনিঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জেবলি ত্রিপুরা।

কার্তিক ত্রিপুরা দীঘিনালা পোমাং পাড়ার বাসিন্দা, তবে চাকুরির সুবাদে এখন সস্ত্রীক জেলা সদরের খাগড়াপুর এলাকায় বসবাস করছেন।

এ ব্যাপারে কার্তিক ত্রিপুরা বলেন, ‘কর্মহীন ক্ষুধার্ত মানুষের কষ্ট দেখলে মায়া লাগে। তাই নিজের এবং স্ত্রীর বেতনের টাকা দিয়ে দরিদ্রদের মাঝে সাধ্য অনুযায়ী সামান্য ত্রাণ বিতরণ করছি। দরিদ্র পরিবারের কিছুটা হলেও সহযোগিতা করতে পেরে আমরা স্বামী স্ত্রী দু’জনেই খুশি।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নানিয়ারচর সেতু : এক সেতুতেই দুর্গমতা ঘুচছে তিন উপজেলার

কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির ৬০ বছর পর এক নানিয়ারচর সেতুতেই স্বপ্ন বুনছে রাঙামাটি জেলার দুর্গম তিন …

Leave a Reply