নীড় পাতা » বান্দরবান » লামায় জিপগাড়ি উল্টে আহত ১০

লামায় জিপগাড়ি উল্টে আহত ১০

বান্দরবানের লামা উপজেলায় বেপরোয়া গতির একটি যাত্রীবাহি জিপগাড়ি উল্টে ১০ যাত্রী আহত হয়েছেন। বুধবার সকালে লামা-আলীকদম সড়কের শীলেরতুয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহতরা হলেন- জাহেদুল ইসলাম (৪০), মো.পারভেজ (৩৮), মনির আহমদ (৪১), সাহাব উদ্দিন (২৯), তিনলক মুরুং (২৭), মেনতং মুরুং (২৮), রেজাউল করিম (৪৫) ও রবিন্দ্র লাল বড়ুয়া (৫০)। আহতদের মধ্যে ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কজনক হওয়ায় তাদেরকে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আহতরা নাইক্ষ্যংছড়ি, চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, চকরিয়া উপজেলা থেকে একটি জিপগাড়ি (ঢাকা ল ২১০) যাত্রী বোঝাই করে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আলীকদম উপজেলায় যাচ্ছিল। গাড়িটি সড়কের শীলেরতুয়া এলাকার মার্মা পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছাকাছি পৌঁছলে একটি টমটম গাড়িকে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারায় চালক। এতে গাড়িটি সড়কের পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উল্টে গিয়ে ১০ যাত্রী আহত হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদস্যরা স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। দুর্ঘটনার পর গাড়ি চালক মো. মনির পালিয়ে যায় বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

আহত যাত্রীরা জানায়, চালক মো. মনির শুরু থেকেই বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালাতে শুরু করে। একাধিকবার নিষেধ করার পরও সে নিষেধ অমান্য করে বেপরোয়া গাড়ি চালালে গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক মো. শফিউর রহমান মজুমদার বলেন, আহতদের মধ্যে ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি দেয়া হয়।

জিপগাড়ি উল্টে ১০ যাত্রী আহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, দুর্ঘটনায় পতিত জিপগাড়িটি আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহতদের পরিবারের পাশে দাঁড়াতে পবন চৌধুরীর অনুরোধ

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে নির্মাণাধীন পিসিআর ল্যাবে বৈদ্যুতিক সংযোগের কাজ করতে গিয়ে নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে আরও …

Leave a Reply