নীড় পাতা » ফিচার » অরণ্যসুন্দরী » লাজবতী বানরটির ঠিকানা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক

লাজবতী বানরটির ঠিকানা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক

banorখাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা থেকে উদ্ধার হওয়া সেই ‘লজ্জাবতী’ বানরটি এখন কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজরা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে। প্রয়োজনীয় ডাক্তারী পরীক্ষা শেষে ‘লজ্জাবতী’ বানরটিকে পার্কে অবমুক্ত করেন বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের রেঞ্জার একেএম মোরশেদুল আলম। এসময় অন্যান্যের মধ্যে ফরেষ্টার মাজহারুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। বানটিকে অবমুক্ত করার আগে প্রয়োজনীয় ডাক্তারী পরীক্ষা-নীরিক্ষা করেন পার্কের ভেটেরিনারি সার্জন মোস্তাফিজুর রহমান।

লজ্জাবতী বানর একটি সংকটাপন্ন প্রাণি উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের রেঞ্জার একেএম মোরশেদুল আলম বলেন, এক সময় এটি প্রচুর পরিমাণে থাকলেও বর্তমানে নানা প্রতিকুলতায় তা আজ বিলুপ্ত প্রায়। তিনি বানরটি স্কুল ছাত্রদের কাছ থেকে উদ্ধার করে ডুলাহাজরা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে প্রেরণের জন্য মাটিরাঙ্গার উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তাঁর সময়োচিত ও দ্রুত পদক্ষেপের কারণে বিলুপতপ্রায় লজ্জাবতী বানরটি রক্ষা করা সম্ভব হলো।

উল্লেখ্য, বিগত ২৪ আগষ্ট (শনিবার) মাটিরাঙ্গার উপজেলার প্রত্যন্ত বামাগোমতি এলাকার স্কুল ফেরত শিক্ষার্থীরা লজ্জাবতী বানরটি ধরে। পরে খবর পেয়ে মাটিরাঙ্গার উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমান লজ্জাবতী বানরটি উদ্ধার করে নিজের হেফাজতে রাখেন এবং গত সোমবার (২৯ আগস্ট) ব্যক্তিগত যোগাযোগের মাধ্যমে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজরা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে অবমুক্ত করার উদ্দেশ্যে বানরটি হস্তান্তর করেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহতদের পরিবারের পাশে দাঁড়াতে পবন চৌধুরীর অনুরোধ

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে নির্মাণাধীন পিসিআর ল্যাবে বৈদ্যুতিক সংযোগের কাজ করতে গিয়ে নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে আরও …

Leave a Reply