নীড় পাতা » ব্রেকিং » লংগদুতে স্থাপিত হচ্ছে ১১টি ‘মেনো ফিল্টার’

বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহের লক্ষে

লংগদুতে স্থাপিত হচ্ছে ১১টি ‘মেনো ফিল্টার’

স্থানীয় জনসাধারণের বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহের লক্ষে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উদ্যোগে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ‘ভূ-উপরস্থ পানি সরবরাহ প্রকল্পে’র আওতায় রাঙামাটির লংগদু উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ১১টি ‘মেনো ফিল্টার’ স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে। এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে লংগদু উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর।

লংগদু উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী সুব্রত বড়ুয়া জানান, ‘ভূ-উপরোস্থ পানি সরবরাহ প্রকল্পে’র আওতায় এবং জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদরের অর্থায়নে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। বর্তমানে লংগদু উপজেলায় ১১টি মেনো ফিল্টারের মধ্যে প্রথমধাপে ৬টির কাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্যে লংগদু সদর হাসপাতালে একটি, উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন একটি, বেসরকারি রাবেতা হাসপাতালে একটি, লংগদু সেনা জোনে একটি, কাঁঠালতলা এলাকায় একটি ও মাইনীমুখ বাজার মসজিদটিলা এলাকায় একটি।

তিনি আরও জানান, এই ‘মেনো ফিল্টার’ স্থাপনের ফলে এলাকার জনসাধারণ তাদের বিশুদ্ধ পানীয় জলের চাহিদা পূরণ করতে পারবেন। এখানে বৃষ্টির পানি, নদীর পানি এক কথায় ভূ-উপরোস্থ পানিকে সংগ্রহ করে এই ফিল্টারে রাখা হলে সেই পানি ফিল্টার হয়ে অন্য পাইপ দিয়ে বিশুদ্ধ পানি বের হবে। এটি আধুনিক প্রযুক্তিগত একটি প্রকল্প। এতে এলাকাবসীরা সুফল পাবেন।

লংগদু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. অরবিন্দ চাকমা জানান, ‘মেনো ফিল্টার’টি একটি হার্বেস্টিং পদ্ধতি। এই ফিল্টার স্থাপনের ফলে হাসপাতালের রোগী ও স্টাফরা এখান থেকে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করতে পারবেন। এতে জনসাধারণ উপকৃত হবে।

লংগদু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার জানান, উপজেলা পরিষদেরে মাধ্যমে আমরা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে চাহিদাপত্র পাঠানো হলে তখন প্রাথমিকভাবে ১১টি ‘মেনো ফিল্টার’ বরাদ্দ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে অন্যান্য এলাকায় যাতে এই ধরনের প্রকল্প বসানো যায় তার জন্য চেষ্টা করব।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

পাহাড়ের বৈচিত্র্যময় সংস্কৃতি সংরক্ষণ-বিকাশে কাজ করছে সরকার: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এম খালিদ বলেছেন, ‘পাহাড়ের বৈচিত্রময় সংস্কৃতি সংরক্ষণ ও বিকাশে কাজ করছে সরকার। …

Leave a Reply