নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » রেকর্ড শনাক্তে আতঙ্ক বেড়েছে রাঙামাটিতে

রেকর্ড শনাক্তে আতঙ্ক বেড়েছে রাঙামাটিতে

‘করোনামুক্ত’ রাঙামাটিতে ৬ মে প্রথম বারের মত চার জনের দেহে করোনা শনাক্তের পর দ্বিতীয় দফায় পাঠানো নমুনা রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ আসায় যতটা স্বস্তি ছিল; বৃহস্পতিবারের রেকর্ড শনাক্তে যেন এর চেয়ে কয়েকগুন অস্বস্তি ভর করেছে রাঙামাটিবাসীর।

প্রথম দিন (৬ মে) ৪ জন, দ্বিতীয় দিন (১২ মে) ১ জন ও তৃতীয় দিন (১৩ মে) ৯ জন শনাক্তের পর বৃহস্পতিবার (১৪ মে) রাঙামাটিতে করোনা সংক্রমণের পুরনো রেকর্ড ছাড়িয়ে নতুন রেকর্ড হয়েছে। এদিন জেলার দুই উপজেলাসহ মোট ১১ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আর এটিই পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলার মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত রেকর্ড।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, শনাক্তদের মধ্যে লংগদু উপজেলার ২ জন, জুরাছড়ির ৬ জন এবং রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের একজন সেবিকা (নার্স), একজন আয়া ও শহরের রিজার্ভবাজার এলাকার এক ব্যক্তি আছেন।

এর আগে ১৩ মে রাঙামাটিতে উপজেলা সদরে দুইজন চিকিৎসক ও রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের তিন জন সেবিকা (নার্স), বিলাইছড়ির দুই জন, কাউখালী এক স্বাস্থ্যকর্মী, রাজস্থলীতে একজনসহ মোট নয়জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। ১২ মে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের আরেক সেবিকার (নার্স) দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

এছাড়া ৬ মে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে এক সেবিকা ও জেলা শহরের রিজার্ভবাজার এলাকার নয় মাসের এক শিশুসহ চারজনের দেহে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। এনিয়ে রাঙামাটিতে শিশু, চিকিৎসক, সেবিকা, স্বাস্থ্যকর্মীসহ ২৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হল। তবে প্রথমে শনাক্ত হওয়া চারজনের দ্বিতীয় দফায় রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ এসেছে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের করোনা ফোকাল পারসন ডা. মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার নতুন শনাক্তদের মধ্যে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে কর্মরত দুইজন স্বাস্থ্য বিভাগের। বাকি ৯ জন সাধারণ মানুষ। এদের মধ্যে ৫ জন নারী ৬ জন পুরুষ আছেন। একজনের বয়স ৭০ বছর। বাকিরা সবাই মধ্যবয়স্ক। তাদের সবার নমুনা পাঠানো হয়েছিল ৯ মে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

পাহাড়ের বৈচিত্র্যময় সংস্কৃতি সংরক্ষণ-বিকাশে কাজ করছে সরকার: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এম খালিদ বলেছেন, ‘পাহাড়ের বৈচিত্রময় সংস্কৃতি সংরক্ষণ ও বিকাশে কাজ করছে সরকার। …

Leave a Reply