নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » রামগড়ে ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন

রামগড়ে ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন

খাগড়াছড়ির রামগড়ে ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে সদ্যনির্মিত রামগড় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার কমপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী) খাগড়াছড়ি ২৯৮ আসনের সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

রামগড় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে নবনির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের অডিটোরিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার( ভূমি) সজিব কান্তি রুদ্র। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সংরক্ষিত নারী সাংসদ বাসন্তী চাকমা। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক জসীম চৌধুরীর সঞ্চলনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাবেক মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মফিজুর রহমান।

এতে আরও উপস্থিত ছিলেন- খাগড়াছড়ি এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ হাসান আলী, রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ ত্রিপুরা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার ফারুক, রামগড় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোস্তফা হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য মংপ্রু চৌধুরী, রামগড় পৌরসভার মেয়র কাজী শাহজাহান রিপন, উপজেলার সর্বস্তরের মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিকবৃন্দ এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী) কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী একটি অসাম্প্রদায়িক সরকার। মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় সারা দেশে উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয় সরকার। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশের সর্বস্তরের মানুষের কথা চিন্তা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সর্বক্ষেত্রে প্রণোদনা দিচ্ছেন।

রামগড় উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী তন্ময় নাথ জানান, ‘উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় রামগড় উপজেলার কমপাড়ায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান রিপ এন্টারপ্রাইজকে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মান কাজের টেন্ডার দেয়া হয়। ৯ শতক জায়গায় ৫ তলা ফাউন্ডেশনের উপর ৩ তলা ভবন নির্মাণে বরাদ্দ দেয়া হয় ২ কোটি ৩০ লাখ ৭৮ হাজার ৬৮৯ টাকা।

রামগড় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মফিজুর রহমান জানান, উপজেলা পর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের মধ্য দিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল। অনেক মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন অর্থাভাবে চিকিৎসা বা ছেলে মেয়েদের পড়া লেখা করাতে পারছেন না। এখন থেকে প্রতি মাসে কমপ্লেক্স থেকে যে অর্থ আসবে তা মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা ও সন্তানদের পড়া লেখাসহ তাদের কল্যাণে ব্যয় করা হবে। ফলে অতিরিক্ত সুবিধার আওতায় আসলো উপজেলার মুক্তিযোদ্ধারা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নানিয়ারচর সেতু : এক সেতুতেই দুর্গমতা ঘুচছে তিন উপজেলার

কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির ৬০ বছর পর এক নানিয়ারচর সেতুতেই স্বপ্ন বুনছে রাঙামাটি জেলার দুর্গম তিন …

Leave a Reply