নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » রামগড়ে আলোচনা সমালোচনায় ভূইয়াঁ পরিবার

রামগড়ে আলোচনা সমালোচনায় ভূইয়াঁ পরিবার

Ramghar-UZ-Coverআসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে খাগড়াছড়ির ৬টি উপজেলার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচন নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে আগ্রহের কমতি নেই। তবে নির্বাচনে সবার দৃষ্টি এখন রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দিকে। কারণ এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন চাচা-ভাতিজা-ভাগিনা। তারাঁ হলেন, চাচা বর্তমান রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন ভূইয়াঁ, ভাতিজা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ভূইয়াঁ এবং ভাগিনা বিএনপি সমীরণ অংশের প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন ভূইয়াঁ। আর নির্বাচনের অনেক আগেই আলোচনায় চলে আসছে রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করার অভিযোগসহ নানা অভিযোগ এনে বহিষ্কার করা হয়েছে বর্তমান রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সহ সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভূইয়াঁকে।
জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু ইউছুফ মিয়া মঙ্গলবার বহিস্কার করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা ছিল প্রত্যেক উপজেলায় বিএনপি থেকে একক প্রার্থী দেয়ার জন্য। যদি কেউ দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনে অংশ নেয় তাকে বহিষ্কারের কথাও বলা হয়েছিল। বেলায়েত হোসেন ভূইয়া দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনে অংশ নেয়ায় তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কারের অবগতি পত্র কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আলোচনায় ভূইয়াঁ পরিবার
খাগড়াছড়িদে বিএনপি মানে ভূইয়াঁ পরিবারের একছত্র আধিপত্ত্য। বিএনপির জেলা কমিটি থেকে শুরু করে উপজেলা বা অঙ্গসহযোগী সংগঠন সবখানে রয়েছে ভূইয়াঁ পরিবারের সদস্য। কিন্তু সময় যতই যাচ্ছে পরিবারটির পারিবারিক কোন্দল বেরিয়ে আসছে রাজনীতিতেও । খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়াঁর বড় ভাই হলেন সদ্য বহিস্কৃত রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন ভূইয়াঁ। নিজ বড় ভাইকে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে বহিস্কার করেছেন ওয়াদুদ ভূইয়াঁ। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, মূলত দীর্ঘ বছর ধরে উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল পরিবারটির মধ্যে। আর সেই দ্বন্দ্বের বহিৃপ্রকাশ ঘটে রাজনীতিতে। আর এই কারণে বিভক্ত বিএনপির সমীরণ গ্রুপের রাজনীতিতে যুক্ত রয়েছে ওয়াদুদ ভূইয়াঁর ভাগিনা বর্তমান রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়াম্যান প্রার্থী রিয়াজ উদ্দীন ভূইয়াঁ, তার ছোট ভাই নিজাম উদ্দিন ভূইয়াঁসহ আরো অনেকে। এদিকে বেলায়েত ভূইয়াঁ দল থেকে বহিস্কৃত হতে পারেন এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল অনেক আগ থেকে। গত বছরের মাঝামাছি সময়ে সদ্য বহিস্কৃত জেলা বিএনপি‘র সহ-সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভুইয়ার নেতৃত্বে নতুন ধারার আতœপ্রকাশ ঘটে। ‘নাগরিক পরিষদ’ নামে নতুন ধারার কারণে স্থানীয় বিএনপিতে চলছে তোলপাড়। শুরু হয় নতুন হিসেব নিকেশও।

বেলায়েত ভূইয়াঁর বিরুদ্ধে যত অভিযোগ
জেলা কমিটির সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়া বড় ভাই বেলায়েত ভূইয়াঁর বিরুদ্ধে অসদাচরণ, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ, অনৈতিক কর্মকান্ডে যুক্ত,প্রকাশ্য ও পরোক্ষভাবে আতাঁত করে দলের ক্ষতি করার মানসে কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ আনেন। বেলায়েত ভূইয়াঁর কাছে পাঠানো এই চিঠিতে আরো বলা হয়, ‘খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত হওয়ার পর ২০১০ সালের জানুয়ারি থেকে অদ্যাবধি দলীয় কোন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করেননি তিন। আওয়ামী দু:শাসনে দলীয় নেতাকর্মীদের হামলা, মামলা ও নির্যাতনের সময় তাদের খোঁজখবর নেননি বা পাশে দাঁড়াননি। দীর্ঘদিন যাবত দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে অসদাচরণ ও দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী কার্যকলাপে লিপ্ত রয়েছেন। অনৈতিকভাবে বিএনপি বিরোধীদের সাথে প্রকাশ্য ও পরোক্ষভাবে আঁতাত করে দলের ক্ষতি ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার মানসে কর্মকান্ডে লিপ্ত এবং ক্ষমতাসীনদের দিয়ে দলের সাধারণ নিরীহ নেতাকর্মীদের উপর ও তাদের বাড়িঘরে হামলা ও নির্যাতন চালানোর অভিযোগ করা হয়। নিজ খেয়াল-খুশী মত দলীয় গঠনতন্ত্র ও শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছেন । তথাকথিত নাগরিক কমিটি নামে স্থানীয় একটি সংগঠন তৈরি করে, সংগঠনটিকে দীর্ঘদিন ধরে বিএনপি’র বিরুদ্ধে ব্যবহার করে আসছেন। এছাড়া দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ারও অভিযোগ করা হয়।
তবে বিএনপির জেলা কমিটি বহিস্কার করার ক্ষমতা রাখেননা বলে জানিয়েছেন সদ্য বহিস্কৃত বেলায়েত হোসেন ভূইয়াঁ। তিনি বলেন, জেলা কমিটি সুপারিশ করবে কেন্দ্রীয় কমিটিকে, তারপর কেন্দ্র এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

স্ত্রী প্রার্থী হওয়া স্বামী বহিস্কৃত
খাগড়াছড়ির মানিকছড়্ উিপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্ত্রী রাহেলা আক্তার ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় স্বামী উপজেলা বিএনপির সিনিয়িন সহ সভাপতি এম,কে আজাদকে বহিস্কার করা হয়েছে। অন্যদিকে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করায় বহিস্কৃত হয়েছেন উপজেলা বিএনপি‘র সহ-সভাপতি এসএম রবিউল ফারুক।
দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করায় এই দুইজনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানালেন কমিটির সভাপতি এমএ করিম। গত বৃহস্পতিবার বিকালে মানিকছড়ি উপজেলা বিএনপির কার্য নির্বাহী কমিটির এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি এম এ করিম।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা হলেন দীপংকর তালুকদার

বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার প্রধান উপদেষ্টা হয়েছেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী …

Leave a Reply