নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » রাজস্থলীতে ১ পিসিপি কর্মী গ্রেফতার,প্রতিবাদ পিসিপি ও জনসংহতির

রাজস্থলীতে ১ পিসিপি কর্মী গ্রেফতার,প্রতিবাদ পিসিপি ও জনসংহতির

Mongko-marma
নিহত মংক্য মারমা

রাজস্থলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মংক্য মারমা হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে অংসিংনু মারমা (২৪) নামে পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের(পিসিপি) এক কর্মীকে গ্রেফতার করেছে চন্দ্রঘোণা থানা পুলিশ । সোমবার রাতে মংক্য মারমার একই এলাকা কাকড়াছড়ির বাসিন্দা ও পিসিপি কর্মী কে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই একই এলাকার মংরে মারমার পুত্র বলে জানা গেছে। গ্রেফতারকৃত অংসিনু মারমা হত্যাকান্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলার অন্যতম আসামী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে হত্যাকান্ডের ঘটনায় সোমবার চন্দ্রঘোনা থানায় নিহত মংক্য মারমার জৈষ্ঠ্যপুত্র উসাই মং মারমা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় স্থানীয় ৪/৫ জনকে সুনির্দিষ্টভাবে নাম উল্লেখ করে আসামী করা হয়েছে বলে জানিয়েছে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ। চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহিরউদ্দিন জানিয়েছেন,নিহতের পুত্রের দায়ের করা মামলার অংসিনু নামে ১ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে,সে পিসিপি কর্মী। বাকীদের নাম জানাতে অপারগতা প্রকাশ করে তিনি বলেন,মামলার তদন্ত ও আসামীদের গ্রেফতারের স্বার্থে নামগুলো জানানো যাচ্ছেনা।

এদিকে গ্রেফতারকৃত অংসিনু মারমাকে মিথ্যা অভিযোগ গ্রেফতার করে বেদম মারধর করা হয়েছে দাবি করে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি গ্রেফতারের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করে বলেছে, বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য-প্রণোদিত অভিযোগে অংসিংনু মারমাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা গ্রেফতারকৃত অংসিংনু মারমাকে অচিরেই নি:শর্তে মুক্তি প্রদানের দাবী জানিয়েছেন।

অন্যদিকে অংসিনু মারমাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিকেল ৩ টায় রাঙামাটি শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করার কথা জানায় পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ। কিন্তু পরে প্রশাসনের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে মিছিল ও সমাবেশ করা হয়নি জানিয়ে পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা সভাপতি বাচ্চু চাকমা বলেন,এই ঘটনার সাথে কোনভাবেই সম্পৃক্ত না থাকা সত্ত্বেও আমাদের পিসিপি কর্মী অংসিনুকে গ্রেফতারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাতেই আমরা কর্মসূচী ঘোষণা করেছিলাম,কিন্তু প্রশাসন তাকে মুক্তি দেয়ার আশ্বাস দেয়ায় আমরা কর্মসূচী স্থগিত করেছি। আমরা আমাদের কর্মীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।’

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, ‘উক্ত হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার ‘মিথ্যা অভিযোগে’ পুলিশ কর্তৃক রাজস্থলীর কাকড়াছড়ি গ্রাম থেকে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সদস্য অংসিংনু মারমা (২৪), পীং মংরে মারমাকে গ্রেফতার করা হয় এবং বেদম মারধর করা হয় বলে জানা যায়। বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য-প্রণোদিত অভিযোগে অংসিংনু মারমাকে গ্রেফতার করার ঘটনায় জনসংহতি সমিতি তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করছে এবং গ্রেফতারকৃত অংসিংনু মারমাকে অচিরেই নি:শর্তে মুক্তি প্রদানের দাবী জানাচ্ছে।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বান্দরবানে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাচিং প্রু মারমার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা …

Leave a Reply