নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাজস্থলীতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনাসদস্য নিহতের ঘটনায় নিরাপত্তা জোরদার

রাজস্থলীতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনাসদস্য নিহতের ঘটনায় নিরাপত্তা জোরদার

রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন। রোববার সকাল ১০টায় রাজস্থলী আর্মি ক্যাম্প থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে পোয়াইতুখুম এলাকায় সেনাবাহিনীর একটি টহল দল হামলার মুখে পড়ে বলে আন্দঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে। নিহতের নাম নাসিম (১৯)। তিনি সৈনিক পদে কর্মরত ছিলেন।

আইএসপিআরের সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘পোয়াইতুখুম নামক এলাকায় আনুমানিক ১০ ঘটিকায় সেনাবাহিনীর একটি নিয়ামিত টহল দলের ওপর সন্ত্রাসীরা অতর্কিতভাবে গুলিবর্ষণ শুরু করে। ফলশ্রুতিতে, সৈনিক নাসিম (১৯) নামে একজন সেনাসদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়। আহত সেনাসদস্যকে তৎক্ষণাৎ হেলিকপ্টারযোগে চট্টগ্রাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।’

এদিকে এ ঘটনার পর চন্দ্রঘোনা-রাজস্থলী ও রাজস্থলী-বান্দরবান সড়কে থমথমে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। আতঙ্কে ঘর থেকে তেমন কাউকে অপ্রয়োজনে বের হতে দেখা যায়নি। রোববার বিকেল থেকে রাঙামাটি পুলিশ সুপার মো. আলমগীর কবীরের নির্দেশক্রমে জেলার আইন-শৃঙ্গলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জেলা পুলিশের কার্যক্রম জোরদার করা হয়েছে।

জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কাপ্তাই সার্কেল) মো. জুনায়েত কাউছারের নেতৃত্বে কাপ্তাই, চন্দ্রঘোনা ও রাজস্থলী এলাকায় টহল জোরদার করা হয়েছে। সাতটি চেকপোস্ট ডিউটির পাশাপাশি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, কাপ্তাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নাছির উদ্দিন, চন্দ্রঘোনা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশ্রাফ উদ্দিন, কাপ্তাই থানা পুলিশ পরিদর্শক (ট্রাফিক) তারক চন্দ্র পালসহ আরও অনেকে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কাপ্তাই সার্কেল) জুনায়েদ কাউসার বলেন, আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে রোববার বিকেল থেকেই সেনাবিহিনীর পাশাপাশি পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। সাতটি ক্যাম্প করা হয়েছে। চালানো হচ্ছে অভিযান। তবে এখনো কাউকে আটক করা যায়নি।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা, যুবক গ্রেফতার

রাঙামাটিতে বুদ্ধি ও শারিরীক প্রতিবন্ধী এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। …

Leave a Reply