নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাজবন বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসব ৭ ও ৮ নভেম্বর

রাজবন বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসব ৭ ও ৮ নভেম্বর

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ও দেশের প্রধান বৌদ্ধ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান রাঙামাটির রাজবন বিহারে আগামী ০৭ ও ০৮ নভেম্বর ৪৬তম কঠিন চীবর দানোৎসব উদযাপন করা হবে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সভাকক্ষে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সভায় সভাপতিত্বে করেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা। এ সময় রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার মো. ইসলাম উদ্দিন, জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী ক্য হ্লা খই, পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা অরুনেন্দু ত্রিপুরা, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা )ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি, রাঙামাটি সেনাবাহিনী ২০বীর সেনানিবাসের সার্জেন্ট মো. আলাউদ্দিন, ফায়ার সাভির্স ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক রতন কুমার নাথ, রাঙামাটি পৌরসভার প্যানেল মেয়র কালায়ন চাকমা, রাজবন বিহার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অমিয় খীসা, বনবিহার পরিচালনা কমিটির নির্বাহী সদস্য রনেন্দ্র চাকমা রিন্টুসহ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল, বিদ্যুৎ বিতরণ এবং গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বিগত বছরের কার্যবিবরণী পর্যালোচনা এবং উত্থাপিত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পর কঠিন চীবর দানোৎসব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় রাজবন বিহার পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে গৃহীত প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম সম্পর্কে সভায় উপস্থাপন করা হয়।

বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের বৃহৎ এ উৎসব কঠিন চীবন দান সুস্থ ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার লক্ষে এবং আগত পূর্ণার্থীদের সুবিধার্থে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সড়ক ও নৌ-পথের বিভিন্ন পয়েন্টে প্রয়োজন অনুযায়ী টহল ব্যবস্থা গ্রহণ ও মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে চেক করা, যানজট নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে ট্রাফিক মোতায়েন, সমগ্র এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে পুলিশ বাহিনীকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ, স্বাস্থ্য বিভাগকে মেডিকেল টিম ও অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখা, সুষ্ঠুভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখা, পানি সরবরাহের জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ, সেনিটারী লেট্রিনসমূহের দ্বারা পরিবেশ দূষণ এর বিষয়ে পৌর কর্তৃপক্ষ ও অন্যান্য উপস্থিত সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগের প্রধানকে বিহার পরিচালনা কমিটিকে সহযোগিতা প্রদানের জন্য রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা অনুরোধ জানান। বৃহৎ এ ধর্মীয় অনুষ্ঠানটি সুস্থ ও সুন্দরভাবে পরিচালনার জন্য রাঙামাটির রাজ বনবিহার পরিচালনা কমিটিকে পরিষদ হতে ৩ লাখ টাকার আর্থিক অনুদান ও বেইন ঘরে যাওয়ার রাস্তাটি সংস্কার করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন পরিষদ চেয়ারম্যান।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাইয়ে ওষুধ সম্পর্কে মতবিনিময় সভা

বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি কর্তৃক নকল, ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সম্পর্কে জনসচেতনতা ফিরিয়ে আনতে …

Leave a Reply