নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » রাঙামাটি শহরের রিজার্ভবাজার সড়কের বেহাল দশা

রাঙামাটি শহরের রিজার্ভবাজার সড়কের বেহাল দশা

DSC00016রাঙামাটি শহরের রিজার্ভ বাজার এলাকার শহীদ আব্দুল আলী একাডেমী হতে লঞ্চঘাট পর্যন্ত সড়কে বিভিন্ন স্থানে গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যান চলাচলে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে। কয়েক দফা রাস্তাটির কাজ করা হলেও অন্তত ১০-১২টি স্থানে পুনরায় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যান চলাচলে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন চালকেরা। এতে দুর্ভোগে পড়েছে এই এলাকার বাসিন্দাসহ বাইরে থেকে আসা লোকজনের। বিশেষ করে গর্ভবতী মহিলাসহ সাধারণ রোগিদের সমস্যা অত্যধিক। এছাড়া পর্যটন এলাকার সুনামও নষ্ট হচ্ছে। রাঙামাটি পৌরসভা ও রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় রাস্তার কাজ সংস্কারও সম্ভব হচ্ছে না। পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় পানি জমে গর্ত সৃষ্টির মূল কারণ উল্লেখ করে পৌর কর্তৃপক্ষ স্থানীয় ব্যবসায়ী সমিতির সহযোগিতা কামনা করেন। অন্যদিকে পৌরসভা যেকোনো সময়ে কাজ শুরু করলে ব্যবসায়ী সমিতির সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে জানান ব্যবসায়ী নেতারা।

রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র সাইফুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, আমরা দায়িত্ব নেওয়ার পর রিজার্ভ বাজার রাস্তাটি তিনবার সংস্কার করেছি। কিন্তু রিজার্ভ বাজার এলাকা থেকে মাস্টার টেইলার্স এলাকা পর্যন্ত কোনো ড্রেনেজ ব্যবস্থা নেই। এখানকার পানি কোনোদিকে যাওয়ার সুযোগ নেই। যার কারণে পানি জমে রাস্তায় গর্ত বা ভাঙ্গন সৃষ্টি হচ্ছে। বিটুমিনের মূল শত্র“ পানি। এই পানি জমে থাকার কারণে রাস্তায় গর্ত সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়াও রিজার্ভ বাজারের অনেক প্রতিষ্ঠানের ছাদের পানি সরাসরি রাস্তার ওপর ফেলার ব্যবস্থা রেখেছে। যার কারণেও রাস্তায় গর্ত সৃষ্টি হচ্ছে। তবে রাস্তার বিষয় নিয়ে আমার কাছে রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি মরহুম হাজি ফজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক জব্বার ভাই এসেছিলেন। তারা আমাকে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজের জায়গা ব্যবস্থা করে দেবেন বলে আশ্বাস দিয়েছিল। ড্রেনেজের জায়গা পেলে আমরা নালা নির্মাণ ও রাস্তার কাজ শুরু করবো। DSC00011

রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জব্বার বলেন, মেয়র মহোদয় আমাদেরকে দুবাইয়ের রাস্তা করে দেবেন বলে প্রতিশ্র“তি দিয়েছিলেন। কিন্তু আমরা বার বার যোগাযোগ করার সত্ত্বেও তিনি সংস্কার কাজ শুরু করেননি। পৌরসভা দৃশ্যমান কাজ শুরু করলে আমরা পানি নিষ্কাশনের জন্য জায়গা বের করে দেবো। তিনি বলেন, নালার জন্য যে জায়গায় বাধা আসবে আমরা ব্যবসায়ী নেতা ও নাগরিক সমাজ মিলে তা প্রতিহত করবো। তবে আগে পৌরসভাকে দৃশ্যমান কাজ শুরু করতে হবে।

রিজার্ভ বাজার এলাকার বাসিন্দা ও রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সুনীল কান্তি দে বলেন, রাস্তাটি সংস্কার কাজ শুরু করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু একইসাথে রাস্তাটির রক্ষণাবেক্ষণে আমরা কতটুকু দায়িত্ব পালন করছি তাও দেখতে হবে। দোকানের সমস্ত পানি রাস্তার ওপর ফেলার কারণে রাস্তাটির স্থায়িত্ব কমে গিয়ে গর্ত সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য ব্যবসায়ীদের সচেতনতা প্রয়োজন বলে তিনি জানান। সামনে বর্ষা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দ্রুত রাস্তার কাজ শুরু করতে হবে।

রাঙামাটি অটোরিক্সা সমিতির সদস্য ও টেক্সিচালক মোঃ সেলিম জানান, রাঙামাটি শহরে অন্যান্য রাস্তায় গাড়ি চালিয়ে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করলেও রিজার্ভ বাজারের রাস্তায় ঢুকলে মাথা খারাপ হয়ে যায়। শহরের প্রধান সড়কের এ অবস্থার জন্য তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, রাস্তাটি দেখলে যেন মনে হয় এর কোনো অভিভাবক নেই।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে করোনায় আরও এক নারীর মৃত্যু

রাঙামাটি শহরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ভোররাতে শহরের চম্পকনগর আইসোলেশন …

Leave a Reply