নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাঙামাটি মুক্ত দিবস সরকারিভাবে পালনের দাবি

রাঙামাটি মুক্ত দিবস সরকারিভাবে পালনের দাবি

123১৯৭১সালের ১৬ডিসেম্বর সারা দেশ স্বাধীন হলেও পাহাড়ে ঘেরা পার্বত্য জেলা রাঙামাটি তখনো ছিল পাক সেনাদের দখলে। ১৬ই ডিসেম্বরের রাতে লঞ্চ যোগে কাপ্তাই লেক দিয়ে রাঙামাটি থেকে কাপ্তাই হয়ে পালিয়ে যায় পাকসেনারা। ১৭ই ডিসেম্বর রাঙামাটি বর্তমান শুক্কুর স্টেডিয়াম তখনকার কোর্ট বিল্ডিং মাঠে প্রথম স্বাধীনতার পতাকা ওড়ান মনিষ দেওয়ান সহ একঝাক তরুন মুক্তিযোদ্ধা।
কিন্তু সে দিবসটি স্বাধীনতার ৪৪ বছরেও রাঙামাটিতে কখনো পালন করেনি প্রশাসন । সামনের বছর থেকে রাঙামাটি স্বাধীনতা দিবস প্রশাসনিক ভাবে পালনের দাবি জানিয়েছে রাঙামাটি জেলা ছাত্র ইউনিয়ন।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাঙামাটি জেলা ছাত্র ইউনিয়নের পক্ষ থেকে রাঙামাটি মুক্ত দিবসে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদের স্মরণে রাঙামাটি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার মোমবাতির আলোয় আলোকিত করা সময় তারা এই দাবি জানান।এই সময় তারা আরো জানান এই দাবি পুরণে প্রয়োজনে জোরালো আন্দলনে নামবেন ছাত্র ইউনিয়ন।
সন্ধ্যা রাঙামাটি শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জলনের সময় রাঙামাটি জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি সৈকত রঞ্জন চৌধুরী , সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ বড়–য়া, সহ সাধারন সম্পাদক সুজন বড়–য়া , সাংগঠনিক সম্পাদক মিশু দে, শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক তুষার ধর,সদস্য শাওন বিশ্বাস, ছাত্র ইউনিয়ন রাঙামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের যুগ্ম আহবায়ক জিয়াদ আবরার সহ ছাত্র ইউনিয়ন রাঙামাটি জেলা , কলেজ, ও স্কুল প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
এই সময় তাদের সাথে রাঙামাটি মুক্ত দিবস পালনের মোমবাতি প্রজ্জলন অনুষ্ঠানে যোগাদেয় রাঙামাটিতে বেড়াতে আশা পর্যটক ও স্থানীয় শিশু কিশোররা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

Leave a Reply