নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » রাঙামাটি থেকে অপহৃত শিশু চট্টগ্রামে উদ্ধার,আটক ২

রাঙামাটি থেকে অপহৃত শিশু চট্টগ্রামে উদ্ধার,আটক ২

রাঙামাটি শহরের হ্যাপীর মোড় এলাকা থেকে এক কিশোরীকে কৌশলে অপহরণ করার ২৪ ঘন্টা না পেরোতেই পুলিশের সহায়তায় চট্টগ্রামের রেলওয়ে এলাকা থেকে উদ্ধার করা হলো তাকে। অপহৃত কিশোরী রুমা আক্তার(১২) শহরের বনরূপার হ্যাপীর মোড় এলাকার কলা ব্যবসায়ী আবদুল জলিলের মেয়ে।
রুমা আক্তারের মা মমতাজ বেগম জানান, বুধবার সকাল ১১টার দিকে তার মেয়েকে চট্টগ্রাম শহরে কাজ দেয়ার নাম করে নিয়ে যায় পাশ্ববর্তী বাসিন্দা ইয়াছিন মিয়ার মেয়ে রেহেনা আক্তার আঁখি। এসময় বাসায় রুমা আকতারের মা-বাবা ছিলনা। বাসা থেকে ডেকে নিয়ে আঁখি ও একজন অপরিচিত ছেলে একটি সিএনজি অটোরিক্সা করে রুমাকে নিয়ে যায়। ঘাগড়া বাজারে গিয়ে ঐ অপরিচিত ছেলেটি নেমে যায় আর রুমাকে নিয়ে যায় আখি। তাকে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন এলাকার একটি বহুতল ভবনের ছয় তলায় আখির ফুফুর বাসায় নিয়ে যায়। রাতেই রাঙামাটি ফিরে আসে আঁখি। এদিকে কৌশলে রাতের বেলায় আঁখিকে ঘরে ডেকে নিয়ে যায় রুমার মা। পরে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দিলে অপহরণের বিষয়টি পরিস্কার হয়। আঁখির দেয়া তথ্যমতে অপহরণের সাথে জড়িত পার্শ্ববর্তী বাসার আবদুল রশিদের স্ত্রী নাছিমা বেগমকেও ধরে ফেলে এলাকাবাসী।
তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী কতোয়ালী থানার এসআই শাহ আলমসহ রাতেই চট্টগ্রাম রওয়ানা হয় রুমার অভিভাবক। চট্টগ্রামের রেলওয়ে থানা পুলিশের সহায়তায় যোগাযোগ করে অভিযান চালানো হয়। ভোর বেলায় রুমাকে রেলওয়ে স্টেশন এলাকার একটি বহুতল ভবনের ছয় তলা থেকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়ার পর সে জানায়, রাতে তাকে একটি ছেলের সাথে থাকতে জোর করে আখির ফুফু। পরে সে রাজি না হওয়াতে অন্য একটি মেয়ের সাথে রাখে। সে জানায়, ঐখানে অনেক মেয়ে রয়েছে।
রুমাকে উদ্ধারের পর তার মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে নাছিমা বেগম ও রেহেনা আকতার আখির বিরুদ্ধে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করে।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কতোয়ালী থানার এসআই শাহ আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অপহরণকারীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে। আসামী আখি ও নাছিমাকে ইতোমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে। আটক হওয়া নাছিমা কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানার পালোয়া গ্রামের এবং আঁখি নোয়াখালীর চরজব্বার থানার চর মজিদ গ্রামের বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

Leave a Reply