নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাঙামাটির সাত উপজেলায় ১২০ রোহিঙ্গা বাড়ি

রাঙামাটির সাত উপজেলায় ১২০ রোহিঙ্গা বাড়ি

rohingaaaমিয়ানমার নাগরিক শুমারিতে রাঙামাটির সাত উপজেলায় মিয়ানমার নাগরিকদের বসবাসরত ১২০ টি বাড়ি চিহ্নিত করেছে জেলা পরিসংখ্যান অফিসের মাঠকর্মীরা।

জেলা পরিসংখ্যান অফিস সুত্রে জানা গেছে,রাঙামাটি পৌরসভা এলাকায় ১৫ টি, কাউখালীতে ৭২ টি,বরকলে ১টি, লংগদুতে ৫টি, কাপ্তাইয়ে ১১ টি, বিলাইছড়িতে ১৩ টি এবং রাজস্থলীতে ৩ টি বাড়িতে মিয়ানমার নাগরিকদের সন্ধান পাওয়া গেছে। তবে জেলার বাকী তিন উপজেলায় আর কোন রোহিঙ্গা বাড়ী বা নাগরিকের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি বলেও জানিয়েছে সূত্রটি।

জেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক মানবেন্দ্র নারায়ন দেওয়ান জানান, ১২ ফেব্রুয়ারী থেকে শুরু হওয়া অনিবন্ধিত মিয়ানমার নাগরিক শুমারির প্রাথমিক পর্যায়ে রাঙামাটি জেলার ৭ উপজেলায় ১২০ টি বাড়ি চিহ্নিত করা হয়েছে। আগামী এপ্রিলের শেষের দিকে এই সাত উপজেলায় কতজন মিয়ানমার নাগরিক আছেন তার শুমারি শুরু করা হবে।

উল্লেখ্য, দেশের ১৬ জেলার ন্যায় রাঙামাটি পার্বত্য জেলায়ও শুরু হয় অনিবন্ধিত মিয়ানমার নাগরিক শুমারি। জেলা পরিসংখ্যান অফিসের উদ্যোগে রাঙামাটি জেলাকে ১৩টি জোনে ভাগ করে ১০ উপজেলায় এক সঙ্গে এ শুমারীর কাজ চলে।

২৩ জন জোনাল অফিসার, ২ জন উপজেলা সমন্বয়কারি, ৩৬ জন সুপার ভাইজার ও ৩৫৫ জন মাঠকর্মী এ শুমারীর কাজে নিয়োজিত ছিলেন। গত ১২ ফেব্রুয়ারী থেকে রাঙামাটিতে অনিবন্ধিত মিয়ানমার নাগরিক শুমারি শুরু হয় এবং ২৫ ফেব্রুয়ারী বুধবার শুমানির কাজ শেষ হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

Leave a Reply