রাঙামাটির গরু চলে যাচ্ছে বাইরে

goruuu-01রাঙামাটি থেকে প্রতিদিনই অসংখ্য গরু চলে যাচ্ছে জেলার বাইরে। অথচ প্রতিবছরই কোরবানি ঈদের আগে গরু বাইরে চলে যাওয়ার কারণে স্থানীয়ভাবে গরুর সংকট দেখা দেয় আর স্থানীয় বাজারে গরুর দাম বেড়ে যায়। ফলে পছন্দের গরু কিনতে ক্রেতাদের ছুটতে হয় জেলার বাইরের বিভিন্ন হাট-বাজারে। ক্রেতাদের দাবি গরু যেনো জেলার বাইরে যেতে না পারে সেজন্য প্রশাসনের জোর নজরদারি। আর বিক্রেতার দাবি সারাবছর গরুর পেছনে সময় ব্যয় করি বেশি দামের আশায়। তবে প্রশাসনও সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রেতা-বিক্রেতার চাহিদা বিবেচনায় নিয়ে পদক্ষেপ নেয়ার।

বিভিন্ন সূত্রে কথা বলে দেখা গেছে, প্রতিদিন অন্তত অর্ধ শতাধিক গরুরৎ ভর্তি ট্রাক যায় জেলার বাইরে। আর এতে করে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন বলে দাবি হাট ইজারাদারের। রাঙামাটি পৌরসভার আওতাধীন শহরের সবচেয়ে বড় হাটটি বসে পৌরসভা ট্রাক টার্মিনালে।

এই হাটের ইজারাদার মোঃ আবদুল শুক্কুর জানান, প্রতিদিন ট্রাক ভর্তি গরু চলে যায় জেলার বাইরে। এভাবে চলতে থাকলে লোকজন গরু কেনার জন্য এই হাটে আসবে না। ফলে হাট ইজারা নিয়ে লাভের চেয়ে ক্ষতির আশংকায় বেশি। তিনি জানান, জেলার বাইরে নিয়ে যাওয়া গরু বাবদ পায় মাত্র পঞ্চাশ টাকা। অথচ এই গরু এখানে বিক্রি করলে প্রতি গরু বাবদ পেতাম এক হাজার টাকার মত। গরু যাতে জেলার বাইরে যেতে না পারে সেজন্য প্রশাসনের এই বিষয়ে নজরদারি বাড়ানো জরুরি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

গরু ব্যাপারী আবু বক্কর ও লংগদু উপজেলার চাইল্ল্যাতলী ইউনিয়নের সোলায়মান জানান, সারাবছর কষ্ট করে গরু লালন পালন করি, এই সময়টাতে দাম বেশি পাওয়ার আশায়। রাঙামাটির বাইরে গরুর দাম একটু বেশি পাওয়া যায়। জেলার বাইরে গরু নিতে গিয়েও প্রতি পথে পথে নানা বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তাছাড়া রাঙামাটি জেলা শহরে গরুর চাহিদাও কম। সব দিক বিবেচনা করে রাঙামাটির বাইরেই গরু নিয়ে যায়।

স্থানীয় ক্রেতা মোঃ মুস্তফা ও সিরাজ সওদাগর জানান, রাঙামাটির বাইর থেকে গরু কিনে তা আনা খুবই কষ্টকর। তারপরেও পছন্দসই গরু কেনার জন্য জেলার বাইরের হাটগুলোতে যেতে হয়। অনেকসময় দামও দিতে হয় বেশি। রাঙামাটির গরু যদি জেলার বাইরে নিয়ে যাওয়াটা ঠেকানো যায়। তবে স্থানীয় ক্রেতারা খুবই উপকৃত হতো। দামের ক্ষেত্রেও সাশ্রয়ী হতো।Goru-02

জেলার বাইরে গরু নিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন জানান, ক্রেতাদের স্বার্থের পাশাপাশি বিক্রেতাদের স্বার্থটাও দেখতে হবে। ব্যাপারীরা সারাবছর কষ্ট করে এই সময়টাতে একটু বেশি দামের আশায়। এইজন্য কিছু কিছু ব্যাপারী গরু হয়তো বাইরে নিয়ে যাচ্ছে। এতে করে রাঙামাটির চাহিদা অনুযায়ী স্থানীয় বাজারে খুব বেশি প্রভাব পড়বে না। তবে আইন-শৃঙ্খলা মিটিংয়ে এই বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। কোরবানীর আগেই গরু বাইরে যাওয়া নিয়ন্ত্রন করা হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply

%d bloggers like this: