নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাঙামাটিবাসির ভোগান্তির শেষ কবে ?

রাঙামাটিবাসির ভোগান্তির শেষ কবে ?

p...3ভোগান্তিতে রাঙামাটি শহরের সাধারণ মানুষ। গত বৃহস্পতিবার রাঙামাটিতে হরতাল পালন করা হয়। শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি শেষে রোববার পালিত হয় পরিবহন ধর্মঘট। এরপর সোমবার সাধারণ মানুষ নিত্যদিনের কাজ সারতে বের হলে কলেজ গেইট এলাকায় রাঙামাটি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে সমাবেশ করতে থাকায় সেখানে ঘণ্টাব্যাপী যান চলাচল বন্ধ থাকে। সাধারণ মানুষকে এসময় হেঁটে সড়ক পার হতে দেখা যায়। শুধু সাধারণ মানুষই নয়, পুলিশ সুপার আমেনা বেগমও পায়ে হেঁটে সড়ক পাড়ি দিয়ে নির্ধারিত সভায় যোগ দিতে যান। সমাবেশ শেষে আবারো গাড়ি চলাচল শুরু হলে পুনরায় ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। পৌরসভার সামনে ভ্রাম্যমান আদালত ফিটনেস, লাইসেন্স ও নম্বরবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করলে ভোগান্তি এড়াতে দুই পাশে পৌরসভার আগেই গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেয় সিএনজি অটোরিক্সার চালকরা। এতে পুনরায় পায়ে হেঁটে পথ পাড়ি দিতে দেখা যায় সাধারণ মানুষদের। জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীদেরও পায়ে হেঁটে গন্তব্যে যেতে দেখা যায়।p..2
বস্তা নিয়ে রাস্তা পাড়ি দেওয়ার সময় কথা হয় আব্দুল আজিজের সাথে। তিনি বলেন, ভেদভেদী থেকে রিজার্ভ বাজার লঞ্চঘাট যাওয়ার উদ্দেশে রওয়ানা দিলাম পৌনে এগারোটার দিকে। প্রথমে কলেজ গেইটে এসে শিক্ষার্থীদের সমাবেশের কারণে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এরপর সেখান থেকে বস্তা কাঁধে নিয়ে পথ পাড়ি দিয়ে কল্যাণপুরে সিএনজিতে উঠি। কল্যাণপুর থেকে রওয়ানা দেওয়ার পর কাকলী সিমেনার সামনে আসলে সিএনজি চালক বলে ‘আর যেতে পারবে না। সামনে মোবাইল কোর্ট বসেছে।’ পরে সেখান থেকে আবার বস্তা কাঁধে নিয়ে পৌরসভা পাড়ি দিয়ে ফিসারি ঘাটের সামনে এসে গাড়িতে উঠে অবশেষে রিজার্ভ বাজার যাই। তিনি বলেন, সিএনজি অটোরিক্সাদের কোনো সমস্যা থাকলে বিআরটিএ সমাধানের জন্য সময় দিতে পারতো। আর যেসব সিএনজির সমস্যা থাকবে তা বাতিল করে দিলেই হয়। তিনি এভাবে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি লাঘবে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
অটোরিক্সা চালক নয়ন জানায়, গাড়িতে নাম্বার, লাইসেন্স ও ফিটনেস সব থাকার পরও গাড়ি নিয়ে মোবাইল কোর্টের সামনে যেতে ভয় লাগে। তারা অনেকসময় ঠুনকো অজুহাতেও জরিমানা করে দেয়। তাই চালকরা ভোগান্তি এড়াতে মোবাইল কোর্টের মুখোমুখি হতে চায় না।
সোমবার অভিযানে অংশ নেওয়া ভ্রাম্যমান আদালত সূত্র জানায়, ফিটনেস, লাইসেন্স ও নাম্বারবিহীন গাড়ি ও চালকদের বিরুদ্ধে নিয়মিতভাবে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। যাদের সব কিছু ঠিক আছে তাদেরকে জরিমানা করা হচ্ছে না।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিবর্ণ পাহাড়ের রঙিন সাংগ্রাই

নভেল করোনাভাইরাসের আগের বছরগুলোতে এই সময় উৎসবে রঙিন থাকতো পাহাড়ি তিন জেলা। এই দিন পাহাড়ে …

Leave a Reply