নীড় পাতা » পাহাড়ে নির্বাচনের হাওয়া » রাঙামাটিতে নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ২৪৫ জন পর্যবেক্ষক ও ৫২ সাংবাদিক

রাঙামাটিতে নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ২৪৫ জন পর্যবেক্ষক ও ৫২ সাংবাদিক

image_28045রাঙামাটি পার্বত্য জেলার ২৯৯ নং সংসদীয় আসনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ইতোমধ্যে ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা শুরু হয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, জেলার একমাত্র এই সংসদীয় আসনে রবিবার সকাল ৮টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ২০১ টি ভোটে কেন্দ্রের ৮৬৬ টি বুথে নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করা হবে। কেন্দ্রের অবস্থান বিবেচনা করে ৩৩ টি কেন্দ্র বেশী ঝুঁকিপূর্ণ, ৮৮ টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। কেন্দ্রগুলোতে নেয়া হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

এইসব কেন্দ্রে ১৯০০ জন পুলিশ সদস্য এবং ২৪১২ জন আনসার ও ভিডিপি সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। ৫টি আনসার ব্যাটালিয়ানের ৩০০ জন সদস্যকে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। বেসামরিক বাহিনীকে সহায়তা প্রদানের জন্য সেনাবাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি বিজিবির সদস্যরাও কাজ করছেন।

সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতিকে যথেষ্ট হিসাবে আখ্যায়িত করে পুলিশ সুপার জানিয়েছেন ভোটাররা যাতে সুষ্ঠু পরিবেশে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন তার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে প্রতিটি উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা প্রদানের পাশাপাশি জেলাপ্রশাসকের কার্যালয় হতে ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে বিভিন্ন উপজেলায় প্রেরণ করা হয়েছে। জেলার ৩ জন অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসককে উপজেলাসমূহের মনিটরিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসারের নেতৃত্বে একটি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সমন্বয় সেল গঠনের পাশাপাশি থাকবে রিটার্নিং অফিসারের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের নির্বাচন ভিজিল্যান্স ও অবজারভেশন টিম। জেলার যুগ্ম-জেলা জজ ও সহকারী জর্জ চট্টগ্রামের সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে ২ সদস্যের ইলেক্টটরাল ইনকোয়ারি কমিটি।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য দেশীয় ৬টি সংস্থার ২৪৫ জন পর্যবেক্ষকের পাশাপাশি জেলা সদরে ৫২ জন সাংবাদিক নির্বাচন পর্যবেক্ষণ এবং সংবাদ সংগ্রহ করবেন বলে জানা গেছে।

রাঙামাটি জেলার নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্নে কথা জানিয়েছেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ নাজিম উদ্দিন। তিনি আশা প্রকাশ করেছেন ৫ জানুয়ারি একটি স্ঠুু নির্বাচন উপভোগ করবেন রাঙামাটিবাসী। তিনি রাঙামাটি জেলার একমাত্র সংসদীয় আসনের নির্বাচনের সার্বিক পরিবেশকে নির্বাচনমুখী এলাকা হিসাবে উলে¬খ করেছেন। নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষে দ্রুততম সময়ের মধ্যে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশ করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নানিয়ারচর সেতু : এক সেতুতেই দুর্গমতা ঘুচছে তিন উপজেলার

কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির ৬০ বছর পর এক নানিয়ারচর সেতুতেই স্বপ্ন বুনছে রাঙামাটি জেলার দুর্গম তিন …

Leave a Reply