নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাঙামাটিতে জেনারেটর বিস্ফোরণে পুড়ল বন কার্যালয় !

রাঙামাটিতে জেনারেটর বিস্ফোরণে পুড়ল বন কার্যালয় !

পার্বত্য শহর রাঙামাটিতে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে বন বিভাগের প্রধান কার্যালয়ের একাধিক ভবন। রোববার সকাল সাড়ে নয়টায় রাঙামাটি শহরের প্রাণকেন্দ্র বনরূপায় অবস্থিত বন বিভাগের একটি বন কার্যালয়ে জেনারেটর বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত ঘটে। পরে মুহূর্ত্বের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ায় পুড়ে ছাই হয় বন বিভাগের চারটি কার্যালয়।

বনবিভাগের কর্মকর্তা ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রোববার সকাল থেকেই রাঙামাটি শহরে বিদ্যুৎ না থাকায় জেনারেটর দিয়েই বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করে বন বিভাগ। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই হঠাৎ জেনারেটরটি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিস্ফোরণ ঘটে এবং বিস্ফোরণে সৃষ্ট আগুন অফিস ভবনগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। এসময় ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ, সেনাবাহিনী ও যুব রেড ক্রিসেন্টসহ স্থানীয়দের চেষ্টায় আগুন যতক্ষণে নিয়ন্ত্রনে আসে, ততক্ষণে পুরো ছাই হয়ে গেছে বনবিভাগের দক্ষিন বনবিভাগ, উত্তর বনবিভাগ, ঝুম নিয়ন্ত্রণ বনবিভাগ ও অশেণিভুক্ত বনবিভাগের প্রধান কার্যালয়।

এই বিভাগগুলোর প্রধান কার্যালয় বনরূপায় একই ভবনে অবস্থিত। সাপ্তাহিক ছুটির পর রোববার সকালে অফিসে আসেন কর্মকর্তা-কর্মচারিরা। কিন্তু বিদ্যুৎ না থাকায় জেনারেটর চালু করা হয়। এর কিছুক্ষণ পরেই সকাল সাড়ে নয়টায় অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়ে প্রায় দুইঘন্টা চেষ্টার পর সাড়ে এগোরোটায় আগুণ নিয়ন্ত্রণে আসে।

দক্ষিন বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম শাহ্ জানিয়েছেন, ‘সকালে জেনারেটর রুম থেকেই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে আমাদের বনবিভাগের প্রায় সব নথি পুড়ে গেছে। আমরা একটি কমিটি করে অগ্নিকাণ্ডের কারণ ও ক্ষতি নিরূপণ করার চেষ্টা করব।’

রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কার্যালয়ের স্টেশন অফিসার উদয়ন চাকমা জানিয়েছেন, ‘আমরা খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছি। এখন বনবিভাগের সাথে কথা বলে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপনের চেষ্টা করব। তবে প্রাথমিকভাবে জেনারেটর দুর্ঘটনাতেই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত বলে মনে হয়েছে।’

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ সকল কর্মকর্তারা অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত বনবিভাগ কার্যালয় পরিদর্শন করেছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিবর্ণ পাহাড়ের রঙিন সাংগ্রাই

নভেল করোনাভাইরাসের আগের বছরগুলোতে এই সময় উৎসবে রঙিন থাকতো পাহাড়ি তিন জেলা। এই দিন পাহাড়ে …

Leave a Reply