নীড় পাতা » ব্রেকিং » রাঙামাটিতে ছয় বাঙালি সংগঠনের বিক্ষোভ

রাঙামাটিতে ছয় বাঙালি সংগঠনের বিক্ষোভ

Rangamati-1পার্বত্য ভূমি কমিশন আইন সংশোধনের প্রতিবাদে এবং সংশোধনীতে গৃহীত বিতর্কিত ধারাসমূহ বাতিলের দাবিতে হরতাল, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভিত্তিক ছয়টি বাঙালী সংগঠন। এরই অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে সংগঠনগুলো। সকাল যৌথভাবে পাঁচটি এবং বিকালে পৃথকভাবে আরেকটি সংগঠন এই কর্মসূচী পালন করে।

পার্বত্য গণ পরিষদ, পার্বত্য নাগরিক পরিষদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলন ও পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদ পৃথক পৃথক সংগঠন এই কর্মসূচি পালন করে। সকালে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে। এছাড়া বিকেলে বাঙালি গণ শ্রমিক ও বাঙালি ঐক্য পরিষদের ব্যানারে শহরে বিক্ষোভ মিছিল পালন করা হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাব্বির আহমেদ, রাঙামাটি সভাপতি মো: ইব্্রাহীম, বাঙালী ছাত্র ঐক্য পরিষদের সভাপতি উজ্জ্বল পাল প্রমূখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন ,‘প্রস্তাবিত আইন একটি কালো আইন, এই আইনে যেকোন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কোন আপিল করা যাবে না। ঐ কমিশনের সদস্যদের মধ্যে পার্বত্য বাঙালিদের কোনও প্রতিনিধিও নাই। কমিশনের চেয়ারম্যান ও সদস্য সচিব পদে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এবং বাকী সদস্যরা উপজাতীয় সদস্য হতে নিয়োগ দেওয়া হবে। বাঙালিদের কোনও প্রতিনিধি না থাকাতে পার্বত্য চট্টগ্রামের ৪৮% বাঙালি জনগণের জন্য ন্যায় বিচার নিশ্চিত হবে না, বাঙালিরা তাদের ভূমির অধিকার হারাবে। পার্বত্য বাঙালিরা এই আইনকে কখনই মেনে নেবে না। প্রয়োজনে বুকের রক্ত দিয়ে এই আইন প্রতিহত করা হবে।’

সমাবেশ থেকে ৮ আগস্ট রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে, খাগড়াছড়ি শাপলা চত্বরের সামনে এবং বান্দরবানে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন এবং ১০ আগস্ট তিন পার্বত্য জেলায় সর্বাত্মক হরতাল পালনের কথা জানানো হয়। একই সাথে আইনের সংশোধনী বাতিল না করলে আরো কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে বলেও জানিয়ে দেয়া হয় সমাবেশ থেকে।
এদিকে বিকালে একই দাবিতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে পার্বত্য বাঙালি গণ শ্রমিক পরিষদ নামের আরেকটি সংগঠন। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে সমাবেশ করে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

One comment

  1. CHT charai ki Bangladesh sadhin hoichilo…naki desh’r Map’r modde CHT chilo na !! konta ? sadin holi kicher agreement !

Leave a Reply

%d bloggers like this: