নীড় পাতা » ব্রেকিং » ‘যারা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাঁধিয়ে ফায়দা লুটতে চায়, তারা জনগণের শত্রু’

‘যারা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাঁধিয়ে ফায়দা লুটতে চায়, তারা জনগণের শত্রু’

updf-flagরাঙামাটি শহরে মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধনকে ‘বিতর্কিত’ আখ্যা দিয়ে এক কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজন আহত হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইউপিডিএফ সমর্থিত পার্বত্য চট্টগ্রামের চার গণতান্ত্রিক সংগঠন- পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ, গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, হিল উইমেন্স ফেডারেশন ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘ।

শনিবার ১০ জানুয়ারি সংবাদ মাধ্যমে দেয়া এক যৌথ বিবৃতিতে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘ষাট সালে উন্নয়নের দোহাই দিয়ে পাকিস্তান সরকারের সৃষ্ট কাপ্তাই বাঁধের ধকল পার্বত্যবাসী এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি। তার ওপরে রয়েছে কাপ্তাই সুইডিশ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের “সুফলের” দৃষ্টান্ত। পার্বত্য চট্টগ্রামের বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণের মতামত তোয়াক্কা না করে সম্পূর্ণ প্রশাসনিক কর্তৃত্ব খাটিয়ে বিতর্কিত মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধনের মাধ্যমে ক্ষমতাসীন সরকার প্রকারান্তরে পাঞ্জাবি শাসকগোষ্ঠীর মূর্তিতে আবির্ভূত হয়েছে এবং চিহ্নিত সাম্প্রদায়িক চক্রকে উস্কানি দিচ্ছে। মুখে উন্নয়নের বুলি কপচালেও সরকারের আসল উদ্দেশ্য হচ্ছে নানা ছলা-কলায় পাহাড়িদের নিজ বাস্তুভিটা থেকে বিতাড়ন, ভূমি বেদখল, সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা জিইয়ে রেখে হত্যাকা-, দমন-পীড়ন জারি রাখা, যার আইনী নাম হলো অপারেশন উত্তরণ। মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন শাসকচক্রের মুখোশ আবারও জনগণের সামনে উন্মোচিত হলো। সাম্প্রদায়িক অপশক্তিগুলো সরকারের তথাকথিত উন্নয়নের সমর্থক সেজে পাহাড়ি-বাঙালি দাঙ্গা বাঁধিয়ে এলাকার রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত করতে চাইছে।’

নেতৃবৃন্দ সকল প্রকার উত্তেজনা ও উস্কানির মুখেও সকলকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘যারা পাহাড়ি ও বাঙালি জনগণের মধ্যে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাঁধিয়ে ফায়দা লুটতে চায় তারা উভয় জনগণের শত্রু।’

চার সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে দাঙ্গাবাজদের গ্রেফতার করে রাঙামাটি শহরে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি থুইক্যচিং মারমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাইকেল চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সভাপতি সোনালী চাকমা।

গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক রিপন চাকমা সাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এইসব কথা জানানো হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বান্দরবানে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাচিং প্রু মারমার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা …

Leave a Reply