নীড় পাতা » পার্বত্য পুরাণ » যদি জীবন আমার থেমে যেতো স্বপ্নের সেই গ্রামে……!!

যদি জীবন আমার থেমে যেতো স্বপ্নের সেই গ্রামে……!!

অনেক দিন পর গ্রামে এলাম। আসতে আসতে সন্ধ্যা হয়ে গেলো। গ্রামে কিন্তু বিদ্যুৎ নেই। তাই সন্ধ্যার পর হারিকেনের বাতিই একমাত্র সম্বল। হাত মুখ ধুয়ে সেই আলোতে দাদীর সাথে বসে চা আর মুড়ি খেতে আমি ব্যস্ত। দাদী ব্যস্ত আমার মাথায় হাত বুলাতে।

দাদী বললো শহুরে জীবনের গল্প শুনতে। আর আমার বাইনা…!! দাদী সেই ছোটবেলার রুপকথার গল্প শুনবো। বলতে না বলতেই আমি দাদীর কোলে শুয়ে পড়লাম। মুচকি হাসিতে দাদী আমাকে গল্প শোনাচ্ছে। এক রাজা ছিল…এক রাণী ছিল….। হাহাহাহ।

চারপাশ নিরব নিস্তব্ধ। বাইরে শুরু ঝিঁ ঝিঁ পোকার ডাক শোনা যাচ্ছে। ঘরে দাদীর গল্প অন্যদিকে বাবার রেডিও’র আওয়াজ। মাঝে মাঝে রান্নাঘর থেকে হারি পাতিলের টুকটাক আওয়াজ।

আমি আসবো শুনে পুকুরে জাল ফেলেছিলো বাবা। আমি আসার পর থেকে পুকুর থেকে তোলা মাছ রান্না করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে মা। রান্না ঘর থেকে মায়ের ডাক আসলো,‘আয় গরম গরম ভাত খাবি’। মাটির ঘর বলে মালুম হয়নি। যেই না ঘর থেকে বের হলাম। শীত কাকে বলে টের পেলাম।

রান্না ঘরে ঢুকতেই নাকে এলো মায়ের হাতের রান্নার অতুলনীয় ঘ্রান। সাদা ভাতের সাথে টাকি মাছের ভর্তা, শিং মাছের ঝোল, রুই মাছ ভুনা সাথে লাল শাক ভাজি। খাবার মুখে দিতেই মনে হলো আহা শহুরে জীবনে এই খাবার কত মিস করেছি। পেট পুরে খেলাম। সবাই খাওয়ার পর হারিকেনের নিভু নিভু আলো জ্বালিয়ে সবাই ঘুমিয়ে পড়লাম।

সকালে ঘুম ভাঙ্গতেই শুনি কিসের যেন আওয়াজ। একটু চোখ মুছে বের হয়ে রান্না ঘরে উকিঁ দিলাম। দাদী মুড়ি তৈরিতে ব্যস্ত। আর ঘরের সামনে নারিকেল গাছের ঢাল দিয়ে তৈরি বিশেষ ঘরে পিঠা তৈরিতে ব্যস্ত মা।

কোয়াশায় ঘেরা চারপাশ। কান টুপি আর গায়ে গরম কাপড় মুড়িয়ে গ্রামের পথ দিয়ে আমি হাটঁছি। যতদুর চোখ যায় ঘন কোয়াশ। মেঠো পথের দুদিকে খেজুর গাছের সারি। তীব্র শীতে থেমে নেই কৃষকের ধানের বীজ লাগানোর কাজ। ধানের শীষে স্পষ্ট শিশির ফোঁটা।

ধান ক্ষেতের মাঝখান দিয়ে স্কুলের পথে ছুটছে দুরন্ত কিশোরদল। কনকনে ঠান্ডায় আগুন জ্বালিয়ে একটু উষ্ণতা নিতে ব্যস্ত কিছু মানুষ। আমি থামলাম গ্রামের মফিজ মিয়ার চায়ের দোকানে। দু হাত চেপে কাপে চুমুক দিলাম চায়ে। আর দীর্ঘশ্বাস ফেলে মনে মনে ভাবছি জীবনটা যদি এখানেই থেমে থাকতো….!!

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জেসমিন সুরভী’র কবিতা স্বপ্নের ফেরিওয়ালা

অচেনা ফেরিওয়ালা হরেক রঙের স্বপ্ন ফেরি করে হাঁটছে এ গ্রাম থেকে সে গ্রাম, ইটের শহর …

Leave a Reply