নীড় পাতা » পৌরসভা নির্বাচন ২০১৫ » মেয়র প্রার্থী নিয়ে বিএনপি’তে টানাপোড়েন

মেয়র প্রার্থী নিয়ে বিএনপি’তে টানাপোড়েন

Bandarban-BNP-PiCপৌরসভা নির্বাচনেও বান্দরবানে বিভক্ত বিএনপির নেতাকর্মীরা। মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে জেলা বিএনপির দুটি পক্ষের মধ্যে টানা পোড়েন চলছে। তৃণমূলের সিদ্ধান্তকে পাশ কাটিয়ে পৌর নির্বাচনে বান্দরবান পৌরসভায় যোগ্যপ্রার্থীদের বাদ দিয়ে অর্থের বিনিময়ে বিকল্প প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়ার প্রস্তাবনা পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে জেলা বিএনপির সভাপতি সাচিং প্রু জেরীর বিরুদ্ধে।

নেতাকর্মীরা জানায়, জেলা বিএনপির বর্তমান আহবায়ক সাচিং প্রু জেরীর সঙ্গে বর্তমান মেয়র জেলা বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ জাবেদ রেজা’র দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক বিরোধ চলে আসছে। বিরোধের কারণে তৃণমূলের সিদ্ধান্তকে পাশ কাটিয়ে জনপ্রিয়তার থাকার পরও বর্তমান মেয়র মোহাম্মদ জাবেদ রেজা’কে বাদ দিয়ে বিকল্প প্রার্থী খোঁজছেন জেরী’র অনুসারীরা। বিকল্প সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীর তালিকায় ছিলেন কৃষকদলের সভাপতি মোহাম্মদ ইসলাম এবং পৌরশাখা বিএনপির সভাপতি নাছির চৌধুরী। কিন্তু গতবৃহস্পতিবাররাতে (২৬ নভেম্বর) জেলা বিএনপির নির্বাচন সংক্রান্ত সভায় কৃষকদলের সভাপতি মোহাম্মদ ইসলামের নাম বান্দরবান পৌসভায় মেয়র প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান বলেন, সভায় অধিকাংশের মতামতের ভিত্তিতেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কেন্দ্রের মধ্যে সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইসলামের জীবনবৃত্তান্ত পাঠানো হয়েছে। তবে এটি চূড়ান্ত নয়। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। বর্তমান মেয়রের নাম মেয়র প্রার্থীর প্রস্তাবনা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে কেন? প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হয়ত আরো ভালো কিছু পাওয়ার আশায়। তবে জেরীর সঙ্গে বিরোধের কারণে কিনা প্রশ্নের উত্তর তিনিও এড়িয়ে যান।

জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মাবুদ বলেন, তৃনমূলের নেতাকর্মীদের সিদ্ধান্তকে পাশ কাটিয়ে ব্যক্তি স্বার্থে নেয়া কোনো সিদ্ধান্তই দলের জন্য ফলপ্রসু হবেনা। বর্তমান মেয়র মোহাম্মদ জাবেদ রেজার জনসর্মন রয়েছে বিষয়টি অস্বীকারের সুযোগ নেই। এদিকে জেলা সভাপতির সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বর্তমান পৌর মেয়র মোহাম্মদ জাবেদ রেজা বলেন, দলের সভাপতি সাচিংপ্রু জেরীর সঙ্গে কয়েকবার দেখা করার চেষ্ঠা করেও তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। কোনো ধরণের ভুলভ্রান্তি থাকলে ক্ষমা চাওয়ার সুযোগও তিনি দিচ্ছেন না। তবে দলের প্রতি আমার বিশ্বাস আছে। দল যে সিদ্ধান্তই নেবে আমি মেনে নিবো।

আর জেলা বিএনপির সভাপতি সাচিং প্রু জেরী বলেন, সভায় নেতাকর্মীদের মতামতের ভিত্তিতেই কৃষকদলের সভাপতি মোহাম্মদ ইসলাম’কে স্থানীয়ভাবে মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করে কেন্দ্রে জীবনবৃত্তান্ত পাঠানো হয়েছে। কেন্দ্রীয়ভাবে এখনো কারো নাম ঘোষণা দেয়া হয়নি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে এক দিনেই ১১ জনের করোনা শনাক্ত

শীতের আবহে হঠাৎ করেই পার্বত্য চট্টগ্রামের রাঙামাটি জেলায় করোনা সংক্রমণে উল্লম্ফন দেখা দিয়েছে। বিগত কয়েকদিনের …

Leave a Reply