নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের ওপর হামলায় ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের ওপর হামলায় ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

অভিযুক্ত দুই ছাত্রলীগ নেতা

খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা বাহার উল্লাহ মজুমদারের ওপর হামলা এবং লাঞ্ছিত করার অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার এবং শরিফুল ইসলাম মজুমদারকে খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগ বরাবর বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম রামগড় পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং শরিফুল ইসলাম মজুমদার উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য পদে আছেন।

রামগড় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাউছার হাবিব শোভন ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার জাহিদ ছোটন স্বাক্ষরিত পৃথক পৃথক দুইটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, রামগড় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বাহার উল্লাহ মজুমদারকে প্রকাশ্যে হুমকি এবং হামলার অভিযোগের সত্যতা প্রমানিত হওয়ায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদকের পরামর্শক্রমে সংগঠনটির নীতি-আদর্শ এবং শৃঙ্খলা পরিপন্থি কার্যকলাপে জড়িত থাকায় মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামকে ছাত্রলীগ রামগড় পৌর শাখা থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য শরিফুল ইসলাম মজুমদারকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে সংবাদ সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধা বাহার উল্লাহ মজুমদার অভিযোগ করেন, গত ৬ অক্টোবর সোনাইপুল আল ফালাহ জামে মসজিদের সাধারণ সভায় হিসাব-নিকাশ নিয়ে কথা-কাটাকাটির পরিপ্রেক্ষিতে কতিপয় ব্যক্তি তার ওপর চড়াও হয়ে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে।এতে তিনি ভীতসন্ত্রন্ত হয়ে রামগড় থানায় জিডি করেন, নং ৪৯৫।

ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্যে রামগড় উপজেলা ছাত্রলীগের একটি সাংগঠনিক তদন্ত টিম গঠন করা হয়, উক্ত সাংগঠনিক তদন্ত টিমের প্রধান রামগড় পৌর শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নাঈম হাসান নয়নের নেতৃত্বে সাংগঠনিক টিমটি ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় মুসল্লীদের কাছ থেকে উক্ত ঘটনার সত্যতা পান অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় জেলা ছাত্রলীগ বরাবর শরিফুল ইসলাম মজুমদারের বিরুদ্ধে বহিষ্কারের সুপারিশ এবং রামগড় পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামকে বহিষ্কার করে রামগড় উপজেলা ছাত্রলীগ।

বহিষ্কারের বিষয়ে রামগড় উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাউসার হাবিব শোভন বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারকে লাঞ্ছিত করা ও প্রাণনাশের হুমকির সত্যতা পাওয়া গেছে। তাই দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে শরিফুল ইসলামকে উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য পদ থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ পাঠানো হয় এবং পৌর ছাত্রলীেগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মজুমদারকে বহিষ্কার করা হয়।

বহিষ্কারের সত্যতা নিশ্চিত করে রামগড় উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য সচিব আনোয়ার জাহিদ ছোটন বলেন, বিশৃঙ্খলাকারী যেই হোক ছাত্রলীগে তাদের স্থান নেই। মুক্তিযোদ্ধারা জাতীর সূর্য্য সন্তান এবং আওয়ামীলীগ মুক্তিযোদ্ধের স্বপক্ষ শক্তির একটি দল, তাই এই দলে যেমন সাম্প্রদায়িকতার ঠাঁই নেই ঠিক তেমনি উশৃঙ্খল ও বিশৃঙ্খলাকারীদেরও ঠাঁই নেই।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার প্রতিবাদ রাঙামাটিতে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার নামে ‘উগ্রমৌলবাদ ও ধর্মান্ধগোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তির …

Leave a Reply