নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » মানিকছড়িতে একাট্টা আওয়ামীলীগ, বিএনপিতে তুষের আগুন

মানিকছড়িতে একাট্টা আওয়ামীলীগ, বিএনপিতে তুষের আগুন

manikchari-pic-01অবশেষে উপজেলা নির্বাচনে মানিকছড়িতে সরকারী দল আওয়ামীলীগে একক প্রার্থী দিতে পারলেও বিরোধী দল বিএনপি তা পারেনি। ফলে আওয়ামীলীগে আপাতত স্বস্তিবোধ এলেও বিএনপিতে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় তৃনমূলে জ্বলছে তুষের আগুন! নেতাকর্মীরা পড়েছে বিপাকে। আর চেয়ারম্যান পদে লড়াই হবে ত্রিমূখী।
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর উপজেলার সর্বত্র ভোটের হাওয়া বইতে শুরু করেছে বেশ জোরে শোরেই। দীর্ঘ দিন বিরোধী দলে থাকা বিএনপি শিবিরের ভোটাররা ভোট দিতে অধির আগ্রহে অপেক্ষার প্রহর গুণছেন। এ উপজেলা বরাবরই বিএনপির ঘাঁটি। কিন্তু দলে বহুদিনের কোন্দল ও অনৈক্য থাকায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে বিএনপির অবস্থান নেই বললেই চলে। বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির দলীয় প্রার্থীর পাশাপাশি আরো ২জন বিদ্রোহী প্রার্থী ছিল। ভোট শেষে ফলাফলে দেখা গেছে বিদ্রোহী শিবিরের প্রার্থী এস.এম.রবিউল ফারুক অল্প ভোটে হেরে যান। অন্যদিকে দলীয় নিজস্ব প্রার্থীর অবস্থান ছিল পঞ্চম। আওয়ামীলীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক এম.এ.জব্বার তখন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়।
আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের দুই শীর্ষ নেতা সাবেক ও বর্তমান সভাপতি প্রার্থী হলে বিপাকে পড়ে দল। এ নিয়ে দফায় দফায় উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে একাধিক বৈঠক শেষে গত ২ ফেব্রুয়ারী জেলা নেতাদের হস্তক্ষেপে দলের বর্তমান সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদীন মনোনয়ন পত্র প্রতাহারের ঘোষণা দেন এবং গতকাল প্রত্যাহারের শেষ দিনে তিনি যথারীতি তা প্রত্যাহারও করেন। ফলে আওয়ালীগে এখন একক প্রার্থী হলেন, চেয়ারম্যান পদে দলের সাবেক সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য ম্্রাগ্য মারমা,ভাইস চেয়ারম্যান পদে যুবলীগের সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম(বাবুল) ও মোঃ জামাল উদ্দীন (স্বতন্ত্র) এবং বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিনা আক্তার।manikchari-pic-02
অন্যদিকে বিএনপিতে ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ পদে একক প্রার্থী হলেও চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে একাধিক প্রার্থী বহাল থাকায় দলের সর্বত্র চলছে নানান বিশ্লেষন। নেতাকর্মীরা দু’ধারায় বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। বিএনপির জেলা সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূঁইয়া চেয়ারম্যান পদে দলের সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল হক(এনাম) ও ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ পদে যুবদল নেতা মো. জাকির হোসেন(সিরাজ) এবং ফেরদৌসি বেগমকে প্রার্থী ঘোষনা করে। কিন্তু তৃনমূলের ভোটারদের দাবীর মুখে গত নির্বাচনে ২য় অবস্থানে থাকা বিএনপি নেতা এস.এম.রবিউল ফারুক চেয়ারম্যান পদে এবং ৩য় অবস্থানে থাকা বিএনপি নেতা এম.কে আজাদ তাঁর স্ত্রী রাহেলা আক্তারকে ভাইস চেয়ারম্যান মহিলা পদে প্রার্থীতা ঘোষনা করে শেষ পর্যন্ত নির্বাচন করায় প্রত্যয় ব্যক্ত করে। যার কারণে বিএনপিতে এখন হ-য-ব-র-ল অবস্থা বিরাজ করছে।
২ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ জয়নাল আবেদীন ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ রেদোয়ান আহম্মেদ তাঁদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সনজীদা শরমিন দু’জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অবদান রাখবে কিশোরী ক্লাব

রাঙামাটির বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) প্রোগ্রেসিভের বাস্তবায়নে ‘আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ’ এই প্রকল্পের …

Leave a Reply