নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » মাটিরাঙ্গায় পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

চিকিৎসার জন্য বাসা থেকে ডেকে নেয়ার পর

মাটিরাঙ্গায় পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় নুর মোহাম্মদ টিপু (৩৫) নামে এক পল্লী চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে মাটিরাঙ্গার সাপমারা এলাকার ব্রিজ নিচে ‘ধলিয়া খাল’ থেকে বিবস্ত্র ও পা, মুখ বাঁধা অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নুর মোহাম্মদ টিপু মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের সিলেটি পাড়ার বাসিন্দা ও মৃত মো: রকমত আলীর ছেলে। নিহত নুর মোহাম্মদ টিপু পেশায় সে একজন পল্লী চিকিৎসক।

পরিবারের সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে স্বজনের অসুস্থতার কথা বলে তার নিজ বাড়ি থেকে তিন জন অজ্ঞাত যুবক এসে তাকে নিয়ে যায়। সকাল হওয়ার পরও নুর মোহাম্মদ টিপু ফিরে না আসায় তার স্ত্রী তাকে ফোন দিলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া তাদের মধ্যে আশঙ্কার সৃষ্টি হয়। পরে নিহতের স্ত্রী বিষয়টি স্থানীয় পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও স্থানীয়দের মৌখিকভাবে জানানো হয়।

পরে নিখোঁজের ৯ ঘন্টা পর শুক্রবার দুপুরে পোনে ১টার দিকে স্থানীয়রা খাগড়াছড়ি-ঢাকা আঞ্চলিক সড়কের সাপমারা ব্রিজের নিচে ধলিয়া খালে বিবস্ত্র ও পা, মুখ বাঁধা অবস্থায় মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে নিরাপত্তাবাহিনী ও পুলিশকে খবর দিলে দুপুরের পৌনে ১টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।

মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী বলেন, নুর মোহাম্মদ টিপুর স্ত্রী আমাকে বিষয়টি জানান তার পর থেকে আমরা চারপাশে অনেক খোঁজাখুজি করেছি। তবে তার কোন হদিস পাচ্ছিলাম না। পরে বিষয়টি মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশকে জানানো হয়। পরে দুপুরের পোনে একটার দিকে মাটিরাঙ্গার সাপমারা এলাকার ব্রিজ নিচে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

এদিকে এ খবরে ঘটনাস্থলে ছুটে যান মাটিরাঙ্গা জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল নওরোজ নিকোশিয়ার পিএসসি, সহকারী পুলিশ সুপার মো: খোরশেদ আলম, মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো: শামসুদ্দিন ভুইয়া, মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো: রফিকুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরশেদ খান ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো: শামছুল হক।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শামছুদ্দিন ভূইয়া বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বিবস্ত্র করে পা, মুখ বেঁধে সাপমারা ব্রিজ এলাকায় ফেলে যায়। ময়নাতদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের শেষে করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। জড়িতদের ধরতে কাজ শুরু করেছে পুলিশ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রামগড়ে ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন

খাগড়াছড়ির রামগড়ে ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে সদ্যনির্মিত রামগড় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন …

Leave a Reply