নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাবে রাঙামাটির ৮৫,৩২৬ শিশু

ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাবে রাঙামাটির ৮৫,৩২৬ শিশু

আগামী ৫ এপ্রিল জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনে রাঙামাটিতে ৮৫,৩২৬ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। রাঙামাটির ৪৯টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভায় ১৩৪৬টি কেন্দ্রে ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সরকারের এ মহাযজ্ঞে প্রায় চার হাজার স্বেচ্ছাসেবী দায়িত্ব পালন করবে। মঙ্গলবার রাঙামাটির সির্ভিন সার্জন কার্যালয়ে সাংবাদিকদের অবহিতকরণ সভায় এ তথ্য জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান। সভার শুরুতে পাওয়ার পয়েন্টে এবছর ক্যাম্পেইনের লক্ষ্যমাত্রা, ভিটামিন ‘এ’র অভাবে সম্ভাব্য রোগ ও এর প্রতিরোধ বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য দেওয়া হয়। পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন সহকারী সিভিল সার্জন ডাঃ বিনোদ শেখর চাকমা।

প্রেজেন্টেশনে জানানো হয়, ৬-১১মাস বয়সী শিশুকে একটি নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২-৫৯মাস বয়সী শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে দৃষ্টিশক্তি ভালো ও অন্ধত্ব প্রতিরোধের ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় বলে জানানো হয়। এর ফলে হাম পরবর্তী জটিলতা কমায়। শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে।

এসময় বিভিন্ন গুজব সম্বন্ধে আয়োজকরা বলেন, মাস সাইকোলজিক্যাল ইলনেসের কারণে শিশু অসুস্থ হয়ে পড়ে। এটি কোনো কারণে ক্যাপসুল খাওয়ার কারণে সৃষ্টি হয় না। গুজব এক্ষেত্রে বড় একটি সমস্য বলে তাঁরা মন্তব্য করেন। আয়োজকরা এসময় গুজব থেকে সচেতন থাকার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান। ২০১৩সাল থেকে ভিটামিন ‘এ’ সপ্তাহ পালন করা হলেও এবার তা পরিবর্তন করে আগামী ৫এপ্রিল ভিটামিন ‘এ’ প্লাস দিবস পালন করা হবে। আগের মতো কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে না।

সিভিল সার্জন জানান, ক্যাম্পেইনের দিন ছাড়াও পরবর্তী ৪দিন সার্চ করা হবে। এসময় কোনো শিশু ক্যাপসুল খাওয়া থেকে বাদ গেলে তা খুঁজে বের করে ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply