নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » ভালোবাসার দিনে মুখরিত পার্বত্য বান্দরবান

ভালোবাসার দিনে মুখরিত পার্বত্য বান্দরবান

BBN-PIc-coverভ্যালেন্টাইন দিবসে বান্দরবানে পর্যটকের ঢল নেমেছে। প্রকৃতির নির্মল ছোয়ায় প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বান্দরবানের নীলাচল, মেঘলা, নীলগিরি’সহ পর্যটন স্পটগুলো প্রিয়জনদের নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন পর্যটকেরা। শুক্রবার ছুটিরদিনে পর্যটকদের আগমনে মুখরিত হয়ে উঠেছে পাহাড়ী জনপথ বান্দরবান। শহরের হোটেল-মোটেল, রেস্ট হাউস এবং গেস্টহাউসগুলো বুকিং হয়ে গেছে। কোথাও সীট না পেয়ে পর্যটকরা এখন দূর্গমাঞ্চলে পাহাড়ীদের মাচাংঘরগুলোকে থাকার বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে বেছে নিচ্ছে। অনেকে আবার বেড়াতে এসেও হোটেল-মোটেলে সীট না পেয়ে ফিরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। পাহাড় ঘেরা বান্দরবান এখন হাজার হাজার পর্যটকের সরব উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে উঠছে। ভালোবাসা দিবসের সঙ্গে টানা দুদিনের ছুটি কাটাতে অধিকাংশ মানুষ প্রিয়জনদের নিয়ে ভীড় জমিয়েছে বান্দরবানে। অনেকে পরিবার পরিজন-নিয়েও বেড়াতে এসে বান্দরবানে। দীর্ঘদিন পর ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে সরব হয়ে উঠেছে বান্দরবান জেলার পর্যটন স্পটগুলো। রাজনৈতিক অস্থিতিরতায় এতদিন পর্যটক শূণ্য অবস্থায় ছিল স্পটগুলো।

বান্দরবান হলিডে ইন রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকির হোসেন জানান, ভ্যালেন্টাইন দিবসকে ঘিরে পর্যটকের আগমনে প্রাণ ফিরেছে পর্যটন ব্যবসায়। আগামী কয়েকদিন রিসোর্টে সবগুলো রুম বুকিং রয়েছে। রাজনৈতিক পরিস্থিতি এভাবে স্বাভাবিক থাকলে ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া সম্ভব হবে।Bandarban-Tourist-Pic_3

প্রশাসন ও ব্যবসায়ীরা জানায়, প্রতিবছর শীত মৌসুম সামনে রেখে বান্দরবানে পর্যটকদের আগমন ঘটে। পর্যটনের অফুরন্ত সম্ভাবনাময় বান্দরবানে প্রকৃতির নির্মল ছোয়া পেতে ছুটে আসে পর্যটককেরা। কিন্তু রাজনৈতিক অচলাবস্থায় বিগত দুবছর পর্যটন মৌসুমগুলোতে পর্যটক শূন্যছিল নীলাচল, মেঘলা, চিম্বুক, স্বর্ণ মন্দির, শৈল প্রপাত, রিজুক ঝর্ণা, কিংবদন্তি বগালেক এবং নীলগিরিসহ জেলার পর্যটন স্পটগুলো। বান্দরবান হিলসাইড রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাসান মনসুর বলেন, সাম্প্রতিক রাজনৈতিক অস্থিরতায় দেশের পর্যটন শিল্পের ক্ষতির পরিমাণ বিগত যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি। এই ক্ষতি আগামী কয়েক বছরেও পুষিয়ে নেয় সম্ভব হবেনা।

পরিবহন শ্রমিক মো: মনসুর জানান, জীপ গাড়ীসহ ৭০/৮০ টি বিভিন্ন ধরণের পর্যটকবাহী গাড়ী রয়েছে বান্দরবান। অনেকদিন পর সবগুলো গাড়ী ভাড়া হয়েছে, চালকরা কেউই বসে নেই। স্থানীয় তাঁত ব্যবসায়ী থুইনকেল বম জানান, পর্যটকরা বেড়াতে আসায় কোমর তাঁতে তৈরি পোষাক বিক্রি বেড়েছে। পর্যটক না আসলে কাপড় বিক্রি করতে পারি না।

জেলা প্রশাসনের ডেপুটি নেজারত শামীম হাসান জানান, পর্যটকদের আকৃষ্ট করার সমস্ত আয়োজন রয়েছে বান্দরবান। ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে পর্যটকের আগমনে সরব হয়ে উঠেছে পর্যটন স্পটগুলো। জেলা প্রশাসন পরিচালিত নীলাচল, মেঘলা’সহ পর্যটন স্পটগুলো আকর্ষণীয় করে তোলা হয়েছে। আগামী দিনগুলোতে পর্যটকের আগমন আরো বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অবদান রাখবে কিশোরী ক্লাব

রাঙামাটির বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) প্রোগ্রেসিভের বাস্তবায়নে ‘আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ’ এই প্রকল্পের …

Leave a Reply