নীড় পাতা » ফিচার » অন্য আলো » বিসিএস’এ আবার সুযোগ মিললো পাহাড়ের ২৮০ প্রার্থীর

বিসিএস’এ আবার সুযোগ মিললো পাহাড়ের ২৮০ প্রার্থীর

high-courte৩৪ তম বিসিএস এর প্রিলিমিনারি পরীক্ষার পুনর্মূল্যায়িত ফলাফল আবারো প্রকাশের নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। এর ফলে দ্বিতীয় দফায় ফল প্রকাশের সময় বাদ পড়া পার্বত্য চট্টগ্রামের ২৮০ জন  পাহাড়ী শিক্ষার্থী  আবারো বিসিএস এর জন্য মূল্যায়িত হবেন।

এক রিট আবেদনের নিষ্পত্তি করে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের বেঞ্চ মঙ্গলবার এই আদেশ দেয়।

গত ৮ জুলাই কোটার ভিত্তিতে ৩৪তম বিসিএসের ফল প্রকাশ করা হয়, এতে ১২ হাজার ৩৩ জন উত্তীর্ণ হন। এই ফলে ‘মেধাবী’ অনেকেই বাদ পড়েছেন অভিযোগ তুলে চাকরিপ্রার্থীরা আন্দোলন শুরু করলে ১৪ জুলাই পুনর্মূল্যায়িত ফল প্রকাশ করা হয়, যাতে ৪৬ হাজার ২৫০ জন লিখিত পরীক্ষার জন্য উত্তীর্ণ হন। কিন্তু সংশোধিত ফল প্রকাশের পর ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর ২৮০ জন পরীক্ষার্থী অভিযোগ করেন, আগের ফলে তারা উত্তীর্ণ হলেও সংশোধিত ফলে তাদের নাম নেই।

পরে প্রথম ফলে উত্তীর্ণ ৫৯জন আবেদনকারীর পক্ষে ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া হাই কোর্টে রিট করলে আদালত রুল জারি করে। পরে জোতির্ময় বড়ুয়া বলেন, প্রথম ফলে পাস করে থাকলে বাদ দেয়ার কোন বিধান নেই। এটা কি কারণে করলো সেই ব্যাখ্যাও পিএসসি দিতে পারেনি। এরপর আদালত আদেশ দেয়।

রিটে বলা হয়, গত ৮ জুলাই প্রকাশিত প্রথম ফলে রিটকারীদের নিবন্ধন নম্বর থাকার অর্থ হচ্ছে তারা ৩৪ তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। কিসের ভিত্তিতে তাদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর পুনর্মূল্যায়িত ফলে বাদ দেয়া হয়েছে সে বিষয়টি স্পষ্ট নয়। পুনর্মূল্যায়িত ফলে আবেদনকারীদের বাদ দেয়া উদ্দেশ্যমূলক এবং সংবিধানের স্পষ্ট লঙ্ঘন।

হাইকোর্টের এই আদেশের ফলে বাদ পড়া পাহাড়ী ২৮০ জন প্রার্থী ‘উপজাতীয় কোটা’য় আবারো বিবেচিত হবেন। ৩৪ তম বিসিএস এর ফলাফল আবারো পুনর্মূল্যায়নে এদের সংযুক্ত করার আদেশ দেয় আদালত।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জনপ্রিয় হচ্ছে ‘তৈলাফাং’ ঝর্ণা

করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল খাগড়াছড়ির পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র। তবে টানা বন্ধের পর এখন খুলেছে …

Leave a Reply